সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ১২:১০ অপরাহ্ন

শিরোনাম ::
আইসিইউতে ভর্তি বিএনপি নেতা মঈন খান পুকুরে টাকা ডুবলেই ‘স্বপ্ন পূরণ পানির নিচে খাদেমের কারসাজি’ সিলেট নগরীতে ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু সিলেটে কুড়িয়ে পাওয়া শিশু উর্মির অভিভাবকের সন্ধান চায় পুলিশ বিশ্বকাপ ট্রফি ৫১ দেশের উদ্দেশে যাত্রা শুরু ‘এখানে কিছু টাকা আছে, এটা দিয়ে আমার দাফন-কাফন করিও’ সিলেটে পাহাড়ি ঢলে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, দুর্ভোগে মানুষ সিলেটে গাঁজাসহ মাদক কারবারি আটক বড়লেখায় বর্হিবিশ্ব জাতীয়তাবাদী ফাউন্ডেশন নেতৃবৃন্দদের সংবর্ধনা প্রদান হবিগঞ্জে ভারতীয় চাপাতাসহ চোরাকারবারি আটক সোমবার টিসিবির পণ্য বিক্রি স্থগিত জকিগঞ্জে নদীভাঙ্গন পরিদর্শনে বীরমুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ কুমিল্লা সিটি নির্বাচনে নিরাপত্তা জোরদারে বিজিবি মোতায়েন নায়িকার জন্যই ভাঙল সোহেল-সীমার ২৪ বছরের সংসার! গোলাপগঞ্জে ৬ প্রতিষ্ঠানকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা




হবিগঞ্জে ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

a12 - BD Sylhet News




বিডিসিলেট ডেস্ক : হবিগঞ্জে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলায় নুরুল ইসলাম নাহিদ (৩০) নামের এক যুবকের যাবজ্জীবন কারাদন্ড, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরো ৬ মাসের বিনাশ্রম কারান্ড দিয়েছেন আদালত।

বুধবার (১২ মে) হবিগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৩ এর বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ হালিম উল্লাহ চৌধুরী এ দন্ডাদেশ দেন। মামলার অপর আসামি রিনা বেগমকে খালাস প্রদান করা হয়েছে।

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৮ সালের ১৬ জুলাই নবীগঞ্জ উপজেলার দাউদপুর গ্রামের ১৫ বছরের স্কুল পড়ুয়া কিশোরী একই গ্রামের মৃত ওয়াব উল্লার পুত্র ফ্লেক্সিলোড ব্যবসায়ী নুরুল ইসলাম নাহিদ কৌশলে ঘরে প্রবেশ করে জোরপূর্বক তুলে তার নিয়ে বাড়িতে ধর্ষণ করে। এতে সহযোগিতা করে রিনা বেগম। এক পর্যায়ে নুরুল ইসলাম পালিয়ে যায়। পরের দিন কিশোরীকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় গোলজার মিয়া বাদি হয়ে ওইদিনই নবীগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করলে পুলিশ নুরুল ইসলাম নাহিদকে গ্রেফতার করে কারাগারে প্রেরণ করে। দীর্ঘদিন কারাবাস করার পর উচ্চ আদালত থেকে জামিনে এসে পলাতক হয়।

তদন্ত শেষে ২০১৯ সালের ৮ এপ্রিল গোপলার বাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ শামস উদ্দিন খান আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশীট) দাখিল করেন নাহিদ ও রিনাকে আসামি করে। স্বাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে আদালত এ রায় দেন। রায়ের সময় নাহিদ পলাতক এবং রিনা আদালতে হাজির ছিলো।

তবে দোষী প্রমাণিত না হওয়ায় অন্য আসামি আনসার মিয়ার স্ত্রী রিনা বেগমকে বেখসুর খালাস দেয়া হয়। রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন, স্পেশাল পিপি অ্যাডভোকেট মোঃ মোস্তুফা মিয়া এবং আসামি পক্ষে ছিলেন শহিদুল ইসলাম।

 

শেয়ার করুন...











বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২২
Design & Developed BY Cloud Service BD