বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৬:৩৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম ::
অপরাধী সংশোধন ও পূর্নবাসন সংস্থা সিলেটের কমিটি গঠিত বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য অবমাননাকারীদের ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ করতে হবে’ বড়লেখায় নিসচা’র ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভ ৫ টাকায় সারাদিন ইন্টারনেট ব্যবহারের পদ্ধতি তৈরি করলেন দুই বাংলাদেশি নিসচা’র ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সিলেট মহানগরের আলোচনা সভা গোলাপগঞ্জে অস্ত্রসহ ডাকাত আটক ম্যারাডোনার মৃতদেহ চুরির আশঙ্কা, ২০০ সশস্ত্র পুলিশ মোতায়েন নতুন তথ্য সচিব খাজা মিয়া যোগদান করেছেন ম্যারাডোনার মৃত্যুতে ‘ভাত খাচ্ছেন না’ নাটোরের বাবু সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের নবনিযুক্ত প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসারের দায়িত্ব গ্রহন আয়কর রিটার্ন দাখিলের সময় বাড়লো এক মাস মহান বিজয়ের মাস শুরু আজ বড়লেখায় যুবলীগের বিক্ষোভ মিছিল বিকাশ প্রতারকের সঙ্গে প্রেম করে টাকা উদ্ধার করলেন কলেজছাত্রী কেনিয়ায়‘মৃত’ব্যক্তির চিৎকারে ভয়ে পালালেন মর্গের কর্মীরা!
cloudservicebd.com

নবম শ্রেণির ছাত্রীর সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে ৪৫ বছরের চেয়ারম্যান!

20201102 202147 - BD Sylhet News

বিডি সিলেট নিউজ ডেস্ক::নবম শ্রেণি পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীকে বাল্যবিয়ে করে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছেন ৪৫ বছর বয়সী এক ইউপি চেয়ারম্যান। তৃতীয় বারের মতো বিয়ের পিঁড়িতে বসায় ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। ঘটনাটি কুড়িগ্রাম জেলার উলিপুর উপজেলার বুড়াবুড়ি ইউনিয়নে। সরকার বাল্যবিয়ে মুক্ত ঘোষণা করার পরও একজন ইউপি চেয়ারম্যান নিজেই কিভাবে বাল্যবিয়ে করেন তা নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্ন উঠছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই ইউনিয়নের দোলন গ্রামের প্রতিবন্ধী বাচ্চু মিয়ার নবম শ্রেণি পড়ুয়া বকসীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বন্নি আক্তারের ওপর নজর পড়ে বুড়াবুড়ি ইউপি চেয়ারম্যান আবু তালেব সরকারের। এরপর ওই শিক্ষার্থীকে নানাভাবে ফুসলিয়ে তার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন এবং হতদরিদ্র মেয়েটির পরিবারটিকে আর্থিক সহায়তার প্রলোভন দেখাতে থাকেন। একপর্যায়ে গত রবিবার রাতে মেয়েটির পরিবারের লোকজন চেয়ারম্যানের সঙ্গে তার বিয়ে দেন।

ব্যক্তিগত জীবনে ইউপি চেয়ারম্যান আবু তালেব সরকারের এক স্ত্রী ও কলেজপড়ুয়া এক কন্যাসন্তান রয়েছে। তবে এর আগেও তিনি আরো একটি বিয়ে করলেও সেটি বেশিদিন টেকেনি। চেয়ারম্যানের তৃতীয় বিয়ের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ছড়িয়ে পড়ায় এলাকায় ব্যাপক সমালোচনার ঝড় বইছে।

এদিকে, একজন নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান প্রকাশ্যে বাল্যবিয়ে করলেও প্রশাসন কোনো আইনি ব্যবস্থা না নেওয়ায় জনমনে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।ইউপি চেয়ারম্যান আবু তালেব সরকারের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা আশরাফুল আলম রাসেল বলেন, যেহেতু বাল্য বিবাহ হয়ে গেছে, সেখানে মোবাইলকোট করার সুযোগ নেই। তবে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০১৭ - ২০২০
Design & Developed BY Cloud Service BD