শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ১০:৫৪ অপরাহ্ন

শিরোনাম ::
সৌদিতে হজে গিয়ে এখন পর্যন্ত ৬৪ বাংলাদেশির মৃত্যু ৩৫ বছর একটানা মসজিদের ইমামতি শেষে রাজকীয় বিদায় শাশুড়িকে বাঁ-চা-তে গিয়ে প্রা’ণ গেল বউয়ের ৪ জনের উমরা হজ্বসহ শতাধিক কৃতী শিক্ষার্থীকে পুরস্কৃত করলো বরুণা মাদরাসা তপোবন যুব ফোরামের উদ্যোগে দুই রেমিট্যান্স যোদ্ধাকে সংবর্ধনা সুনামগঞ্জে সুরমা নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে, বেড়েছে ভোগান্তি কোটা সংস্কারের নামে বিএনপি জামায়াতের সন্তানেরা মাঠে নেমেছে : নিখিল সিলেটে ‘বুঙ্গার-চিনি-কান্ডে’ পুলিশের হাতে আটক ৫ জনের পরিচয় জানা গেল বাংলাদেশে বিনিয়োগ থেকে সরে দাঁড়ালো কোকাকোলা! অনন্ত-রাধিকার বিয়ের অনুষ্ঠানে সস্ত্রীক ধোনি সিলেটে ‘বুঙ্গার চিনি’ কিনে আলোচনায় দুই ছাত্রলীগ নেতা মাত্র সাত মাসে কোরআনে হাফেজ হলেন ফাহিম আবারো সিলেটে বড় চালান ভারতীয় চোরাই ‘চিনি’ জব্দ শেষ মুহূর্তে অসাধারণ গোলে ফাইনালে ইংল্যান্ড চীন সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী




পানি নিষ্কাশনের পথে ইট-পাথরের বাঁধ, পানিবন্দি ৫০ পরিবার

448872380 1287079459363648 3099824010450488898 n - BD Sylhet News




সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : পানি নিষ্কাশনের পথে ইটপাথর দিয়ে স্থায়ী ভাবে বন্ধ করে দেয়ার ৫০টি পরিবারের প্রায় ৩শতাধিক মানুষ গত দুই বছর ধরে পানিবন্দি হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে। শুধু তাই নয় ১শত কিয়ার (৩০ শতাংশে এক কিয়ার) জমি অনাবাদি থাকে এছাড়াও পানি নিষ্কাশনের রাস্তা বন্ধ থাকায় জমে থাকা পানি বাদাঘাট থেকে ঘাগড়া সড়কের উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে তিন স্থানে ভেঙে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ হবার উপক্রম হয়েছে।

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের ঘাগড়া গ্রামে এমনি ঘটনাটি ঘটেছে। আর পানি নিষ্কাশনের পথে ইটপাথর দিয়ে স্থায়ী ভাবে বন্ধ করে দেয়ায় এই গ্রামের আমির হোসেন নামের প্রভাবশালী এক যুবকের বিরুদ্ধে।

এ বিষয়ে তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দিনের কাছে গ্রামের জলাবদ্ধতা নিরসনে ভুক্তভোগী প্রায় ৫০টি পরিবারের গণস্বাক্ষরীত একটি আবেদন করেন।ভোক্তভোগীরা জানায়,পানি নিষ্কাশনের রাস্তা বন্ধ করে দেয়ায় জমে থাকা বর্ষার পানি গ্রামের খড়,বাড়ি-ঘরের আঙিনা সীমানা প্রাচীরের নীচ পর্যন্ত অনেক বাড়িঘরের ভিতরে পানি উঠে যাওয়ায় অনেকেই রান্নাও করতে পারছেন না ছোট
ছোট শিশু ও পারিবার পরিজন নিয়ে পড়েছেন চরম দুর্ভোগে। ঘরের সামনে হাঁটু পানি থাকায় বর্ষার কালে নর্দমার পানির সাথে বর্ষার পানি মিশে নোংড়া হয়ে পড়েছে। সেই নোংড়া পানি ভেঙ্গে গ্রামের মানুষ যাতায়াত করছে নারী এবং শিশুরা। সেই সাথে জমে থাকা পানির কারণে এখানকার প্রায় ১০০ কেয়ার জমিতে (৩০শতাংশে এক কিয়ার) কোন ফসল না করতে পারায় গত দুই বছর ধরে অনাবাদি রয়েছে।

ভুক্তভোগী আব্দুল করিম বলেন, আমির হোসেন প্রভাবশালী মানুষ। সড়কের সাথে সরকারি জায়গা দখলে নিয়ে গ্রামের পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ করে দেয়। প্রতিবাদ করলে আমির হোসেন গত বছর আমাদের নামে মিথ্যা মামলা করে।

গ্রামের শাফিয়া বেগম বলেন, এইখান ড্রেন আছিল আজীবন এই ড্রেইন দিয়া পানি নামছে। অন্নে এখন পাক্কাচাক্কা পাকা সড়ক কইরা বান বাঁধ দেলাইছে দিয়েছে। অন্নে এখন মেঘ আইলেই আসলে পানি লাইজ্ঞা লেগে থাকে।একই কথা এই গ্রামের ভুক্তভোগী কালা মিয়া, জালাল উদ্দিন আব্দুল আহাদ।

ঘাগড়া গ্রামের আওয়ামীলীগ নেতা নুর হোসেন মল্লিক বলেন, গত দুই বছর পূর্বে আমির হোসেন এই জায়গা কিনে গ্রামের পানি নিষ্কাশনের খাল বন্ধ করে দেয়। এখন সে ইটপাথর দিয়ে পানির যাওয়ার রাস্তায় স্থায়ীভাবে বাধঁ দেয়ার কারণে গত দুই বছর ধরে এখানে বসবাসকারী ৫০টি পরিবারের প্রায় ৩ শত মানুষ পানি জমে থাকায় চরম দুর্ভোগে রয়েছে।

অভিযুক্ত ঘাগড়া গ্রামের আমির হোসেন(৩০)বলেন,আমি এই জাগা কিনে মাটি পালাইয়া বাড়ি বানছি। এখন এই জাগা দিয়া পানি যাইবার লাগি দিলে আমার মাটি সব কাইটা যায়গা। তাই ইট দিয়া বান দিছি।

তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দিন বলেন, গ্রামবাসী পানি নিষ্কাশনের জন্য আমার কাছে একটি আবেদন নিয়ে আসছিল। আমি এর আগেও বাধঁ ভেঙে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করে দিয়ে আসছিলাম। এখন যদি আবার ওই স্থানে বাধঁ দিয়ে থাকে তাহলে আমি সরেজমিনে দেখে অতিদ্রুতই ওই গ্রামের জমে থাকা পানি নিষ্কাশনের জন্য বাধঁ অপসারণ করে দিয়ে আসবো।

শেয়ার করুন...











বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২৪
Design & Developed BY Cloud Service BD