শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ১০:১১ অপরাহ্ন

শিরোনাম ::
সৌদিতে হজে গিয়ে এখন পর্যন্ত ৬৪ বাংলাদেশির মৃত্যু ৩৫ বছর একটানা মসজিদের ইমামতি শেষে রাজকীয় বিদায় শাশুড়িকে বাঁ-চা-তে গিয়ে প্রা’ণ গেল বউয়ের ৪ জনের উমরা হজ্বসহ শতাধিক কৃতী শিক্ষার্থীকে পুরস্কৃত করলো বরুণা মাদরাসা তপোবন যুব ফোরামের উদ্যোগে দুই রেমিট্যান্স যোদ্ধাকে সংবর্ধনা সুনামগঞ্জে সুরমা নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে, বেড়েছে ভোগান্তি কোটা সংস্কারের নামে বিএনপি জামায়াতের সন্তানেরা মাঠে নেমেছে : নিখিল সিলেটে ‘বুঙ্গার-চিনি-কান্ডে’ পুলিশের হাতে আটক ৫ জনের পরিচয় জানা গেল বাংলাদেশে বিনিয়োগ থেকে সরে দাঁড়ালো কোকাকোলা! অনন্ত-রাধিকার বিয়ের অনুষ্ঠানে সস্ত্রীক ধোনি সিলেটে ‘বুঙ্গার চিনি’ কিনে আলোচনায় দুই ছাত্রলীগ নেতা মাত্র সাত মাসে কোরআনে হাফেজ হলেন ফাহিম আবারো সিলেটে বড় চালান ভারতীয় চোরাই ‘চিনি’ জব্দ শেষ মুহূর্তে অসাধারণ গোলে ফাইনালে ইংল্যান্ড চীন সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী




সিলেটে একসঙ্গে জন্ম নেওয়া চার শিশুর মধ্যে দুজনের মৃত্যু

150116 - BD Sylhet News




বিডিসিলেট ডটকম :
সিলেটে একসঙ্গে জন্ম নেওয়া চার নবজাতকের মধ্যে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। অন্য দুজন সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শেখ রাসেল বিশেষায়িত সেবাকেন্দ্রের স্ক্যানু ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন। তাদেরও পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

শনিবার ভোরের দিকে ওই দুই নবজাতক হাসপাতালের বিশেষায়িত সেবাকেন্দ্রে মারা যায়। শিশুদের বাবা সত্যরঞ্জন দেবনাথ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, শনিবার দুপুরে সিলেট নগরের চালিবন্দর এলাকায় মারা যাওয়া দুই শিশুর অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয়।

১৫ সেপ্টেম্বর সকালে এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে চার সন্তানের জন্ম দেন সত্যরঞ্জন দেবনাথের স্ত্রী মমতা দেবী (২৭)। চার নবজাতকের দুটি ছেলে ও দুটি মেয়ে ছিল। এর মধ্যে এক ছেলে ও এক মেয়ের মৃত্যু হল। এই দম্পতির পাঁচ বছরের আরেকটি কন্যাসন্তান রয়েছে।

সত্যরঞ্জন সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার মজলিশপুর গ্রামের বাসিন্দা। মমতা দ্বিতীয়বার অন্তঃসত্ত্বা হলে ১০ সপ্তাহের সময় জানতে পারেন, তার গর্ভে একসঙ্গে একাধিক ভ্রূণ বড় হচ্ছে। এরপর থেকে স্ত্রীকে আলাদাভাবে দেখভাল করতেন সত্যরঞ্জন। তবে নির্দিষ্ট সময়ের আগেই ৪০ সপ্তাহের জায়গায় ৩০ সপ্তাহে ব্যথা উঠলে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে চার নবজাতক ভূমিষ্ঠ হয়।

সত্যরঞ্জন দেবনাথ বলেন, চার শিশুর মধ্যে দুটির জন্মের পর থেকে কিছু জটিলতা দেখা দিয়েছিল। শ্বাসকষ্ট ছিল। এ জন্য তাদের স্ক্যানু ওয়ার্ডে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। চিকিৎসকেরা দিনে দুবার করে তাদের শারীরিক বিষয়ে জানাচ্ছিলেন।

সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক সৌমিত্র চক্রবর্তী বলেন, চিকিৎসাধীন দুই শিশুকে সুস্থ রাখতে চিকিৎসকেরা চেষ্টা করছেন।

শেয়ার করুন...











বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২৪
Design & Developed BY Cloud Service BD