রবিবার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ০১:৩৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম ::
বড়লেখায় বৃক্ষরোপণের মাধ্যমে নিসচার মাসব্যাপী কর্মসূচির সমাপ্তি সিলেটের গোলাপগঞ্জের বাঘা থেকে দুই শিশু নিখোঁজ, সন্ধান কামনা কানাইঘাটে লামাঝিংগাবাড়ী মাদরাসার সুপার মরহুম আব্দুল মতিন(র.) স্মরণে শোক সভা পীর হাবিবের বাসায় হামলার প্রতিবাদে সিলেটে মানববন্ধন বড়লেখায় রতুলী বাজার পরিবহন শ্রমিকদের সাথে নিসচার মতবিনিময় ও ক্যাম্পেইন কমিউনিটি পুলিশের সেবা এখন গ্রামে-গঞ্জে পৌছে গেছে: মন্ত্রী ইমরান সিলেটে অবস্থানরত ছাতকের নাগরিকদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত খাদিমপাড়ায় রাস্তা নিয়ে সংঘর্ষ : ৫জন গুরুতর সিলেটে স্বামীর নির্যাতনে মৃত্যুর সাথে পাজ্ঞা লড়ছেন অন্তসত্ত্বা গৃহবধু ছাতক হবে সিমেন্টের শহর- মুহিবুর রহমান মানিক এমপি ফ্রান্সে নবী (স.) কে অবমাননার প্রতিবাদে খাদিমনগরে তৌহিদী জনতার মিছিল ও সমাবেশ সিলেটের মেজরটিলা থেকে অস্ত্রসহ দূর্ধর্ষ সন্ত্রাসী আনছার গ্রেফতার বিয়ানীবাজার পৌরসভায় নতুন রোড রোলার বরাদ্দ,মেয়র শুকুরের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ ছাতকে ১ম মিনি ম্যারাথন অনুষ্টিত মহনবী সাঃ এ-র অবমাননার প্রতিবাদে বড়লেখায় মুসলিম তৌহিদী জনতার বিক্ষোভ মিছিল
cloudservicebd.com

দুর্দান্ত সাহসের নাম `বাবলা’

20200929 115741 - BD Sylhet News

বিডি সিলেট নিউজ ডেস্ক::এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের দ্বারা নির্যাতিত হওয়া দম্পত্তি যখন টডিলাগড় পয়েন্টে এসে কাঁদছিলেন তখন তাদের সহায়তায় এগিয়ে আসেন সাবেক এক ছাত্রলীগ নেতা। তিনিসিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মিহিত গুহ চৌধুরী বাবলা। যিনি বাবলা চৌধুরী নামেই পরিচিত। ধর্ষিতা তরুণীকে সহায়তার পাশাপাশি এই ঘটনা জনসম্মুখে নিয়ে আসা অভিযুক্তদের চিহ্নিত করতেও ভূমিকা রাখেন তিনি।

এমন সাহসী ভূমিকার পর ব্যাপক প্রশংসিত হচ্ছেন বাবলা চৌধুরী। সোশ্যাল মিডিয়ায়ও তার প্রশংসা হচ্ছে।

বাবলা চৌধুরীই এমন বীরোচিত ভূমিকার প্রশংসা করে ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়েছেন তারই কৈশোরের বন্ধু, লেখক হাসান মোরশেদ।

ফেসবুকে এ প্রসঙ্গে হাসান মোরশেদ লেখেন-

২০ বছর পর আজ কথা হলো কৈশোরের বন্ধু বাবলা, বাবলা চৌধুরীর সাথে। বাবলা এমনই বন্ধু ছিলো, শিলং পড়তাম সময় সে দেখতে গিয়েছিলো আমাকে।

বাবলা এক দুর্দান্ত সাহসের নাম। ১৯৯৬ এর আগে যখন এমসি কলেজে ছাত্রদল-শিবিরের সন্ত্রাসের মুখে জয়বাংলা উচ্চারনও করা যেতো না, মিছিলে ১০ জনও থাকতো না তখন বাবলাকে দেখেছি- সন্ত্রাসের মুখোমুখি অটল দাঁড়াতে ছাত্রলীগের বাবলা। তার প্রতিরোধ অহিংস ছিলো সে দাবি করা সম্ভব নয়, কিন্তু আবেগ ছাড়া সে সময় প্রাপ্তিও কিছুর ছিলো না।

এতো বছর পর বাবলাকে ফোন দেয়ার উদ্দেশ্যে তাকে স্যালুট জানাতে। এমসি কলেজে ধর্ষিতা মেয়েটার স্বামী যখন টিলাগড় পয়েন্টে কাঁদছিলো, একটা মানুষ এগিয়ে যায়নি। বাবলা এগিয়ে গিয়ে বিস্তারিত জেনেছে। শুধু জেনেছে তাই নয়, সাথে লোকজন নিয়ে কলেজ হোস্টেলে ছুটে গেছে অপরাধীদের ধরতে, পুলিশকে বারবার ফোন দিয়ে  আনিয়েছে। পুলিশের ইতস্ততা, আরো দুএকজন নেতার সমঝোতার ফাঁকে ধর্ষকেরা পালিয়ে গেছে কিন্তু বাবলা প্রত্যেককে চিহ্নিত করেছে।

আমার বন্ধু বাবলা চৌধুরী বীর, বীরকে স্যলুট জানাতে হয়- তার পাশে দাঁড়াতে হয়।

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে এবার কিছু খারাপ কথা বলি। ধর্ষণের শিকার মেয়েটি ও তাঁর স্বামী আগামীতে বিপদে পড়তে যাবে, তাঁদেরকে নানা ভাবে হ্যানস্তা করা হবে, বিচার প্রক্রিয়া দুর্বল করার চেষ্টা করা হবে। একই সাথে বাবলাকেও ছিঁড়ে ফেলার চেষ্টা করা হবে। কারন বাবলা যদি বীরোচিত ভূমিকা না নিতো তাহলে এই ঘটনা প্রকাশ পেতো না। ধর্ষকদের পেছনের গডফাদাররা এই এলাকায় অনেকদিন থেকেই ড্রাগস, চাঁদাবাজির সাম্রাজ্য গড়ে তুলেছে আওয়ামী লীগের নাম ব্যবহার করে।

সারা বাংলাদেশে যারা এই ঘটনার প্রতিবাদে শামিল হয়েছেন তাদের কারনেই দ্রুততম সময়ে ছয়জন ধর্ষক গ্রেপ্তার হয়েছে। কিন্তু এখানেই শেষ নয়।

সকল এক্টিভিস্ট, নারীবাদী সংগঠন, মানবাধিকার সংগঠন, মিডিয়া এমনকি ছাত্রলীগ আওয়ামী লীগকে এসে পাশে দাঁড়াতে হবে নির্যাতিত নারী ও তার স্বামী এবং অবশ্যই বাবলার পাশে। যতোদিন সুষ্ঠু বিচার নিশ্চিত না হচ্ছে ততোদিন হাল ছাড়া যাবে না।

সবাই মিলে অন্ততঃ একটা দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে হবে। নির্যাতিতরা ন্যায় বিচার না পেলে আমাদের সকলের পরাজয়, বাবলা চৌধুরীর সাহসের স্বীকৃতি না পেলে আর কেউ সাহস পাবে না অন্যায় প্রতিরোধের।

আসুন, ধৈর্য্য ধরে আমরা সবাই তাদের পাশে দাঁড়াই

 

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০১৭ - ২০২০
Design & Developed BY Cloud Service BD