রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০৩:২১ অপরাহ্ন

শিরোনাম ::
২১, ২৩ ও ২৫ জুলাইয়ের সব বোর্ডের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত কোটা সংস্কারের ব্যাপারে নীতিগতভাবে আমরা একমত: আইনমন্ত্রী ফেসবুকে বিভিন্ন ধরনের গুজব ছড়ানো হচ্ছে, গুজবে কান না দেয়ার অনুরোধ পুলিশের আজ আমেরিকান দূতাবাস ও সকল ভারতীয় ভিসা সেন্টার বন্ধ ঘোষণা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের তথ্য যাচাই করে সিদ্ধান্ত নেয়ার আহ্বান জানালেন পলক সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের জরুরি সভা: কর্মসূচি ঘোষণা আগামীকাল সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ ঘোষণা জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী যা বললেন শাবিপ্রবির হলে তল্লাশী, আগ্নেয়াস্ত্র ও মদের বোতল উদ্ধার ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে ৪ ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ সিলেটে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে গায়েবানা জানাজা অনুষ্ঠিত সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী সিলেটে সড়ক দু-র্ঘ’ট’না’য় ২ কিশোর নি-হ-ত কারো মা-বাবার বুক এভাবে খালি হতে পারে না: শাকিব খান শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে আজীবন নিষিদ্ধ অধ্যাপক জাফর ইকবাল




সিলেট সিটিতে ৪২ কাউন্সিলর কে কোন দলের সমর্থক

353844231 6179317582123235 1370802615426187432 n - BD Sylhet News




সিলেট সিটি করপোরেশনের নির্বাচন শেষে ৪২টি ওয়ার্ডে নতুন কাউন্সিলর পেয়েছেন মহানগরবাসী। ৪২টি ওয়ার্ডের নির্বাচিত প্রার্থীদের মধ্যে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জামায়াতের প্রার্থীরা রয়েছেন। যাদের মধ্যে আওয়ামী লীগপন্থী আছেন ২২ জন। বিএনপিপন্থী ৮ জন, স্বতন্ত্র ৮ জন এবং জামাতের ৪ জন রয়েছেন।

আওয়ামী লীগপন্থী প্রার্থীরা হলেন-
২নং ওয়ার্ডে টানা দ্বিতীয়বারের মতো বিজয়ী হয়েছেন বিক্রম কর সম্রাট। তিনি জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য। লাটিম প্রতীকে নির্বাচন করে ২৩২৭ ভোট পেয়েছেন তিনি।

৩নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আবুল কালাম আজাদ লায়েক। ঠেলাগাড়ি প্রতীকে নির্বাচন করে ২১৬২ ভোট পেয়েছেন তিনি।

৪নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন সাবেক যুবলীগের কর্মী শেখ তোফায়েল আহমদ শেপুল। টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীকে নির্বাচন করে ১৩৩৬ ভোট পেয়েছেন তিনি।

৮নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন সাবেক কাউন্সিলর ও মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি জগদীশ চন্দ্র দাশ। ট্রাক্টর প্রতীকে নির্বাচন করে ৩৩০১ ভোট পেয়েছেন তিনি।

৯নং ওয়ার্ডে টানা পঞ্চমবারের মতো বিজয়ী হয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর ও মহানগর আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো. মখলিছুর রহমান কামরান। ঘুড়ি প্রতীকে নির্বাচন করে ৪৯৫০ ভোট পেয়েছেন তিনি।

১০নং ওয়ার্ডে টানা দ্বিতীয়বারের মতো জয় পেয়েছেন ছাত্রলীগের সাবেক নেতা তারেক উদ্দিন তাজ। ঠেলাগাড়ি প্রতীকে নির্বাচন করেন তিনি।

১১নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন সাবেক কাউন্সিলর আব্দুর রকিব বাবলু। তিনি কৃষক লীগের সিলেট মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক। ঘুড়ি প্রতীকে নির্বাচন করে ৩০১৮ ভোট পেয়েছেন তিনি।

১২নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর মো. সিকন্দর আলী। তিনি আওয়ামী লীগপন্থী হিসেবে পরিচিত। ব্যাডমিন্টন র্যা কেট প্রতীকে নির্বাচন করেন তিনি।

১৩নং ওয়ার্ডে টানা ষষ্ঠবারের মতো নির্বাচিত হয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর ও মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য শান্তনু দত্ত সন্তু। ঘুড়ি প্রতীকে নির্বাচন করে ২৩০৪ ভোট পেয়েছেন তিনি।

১৫নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর ছয়ফুল আমিন বাকের। তিনি আওয়ামী লীগপন্থী হিসেবে পরিচিত। টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীকে নির্বাচন করে ২৪৭৬ ভোট পেয়েছেন তিনি।

১৭নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর রাশেদ আহমদ। তিনি আওয়ামী লীগপন্থী হিসেবে পরিচিত। ট্রাক্টর প্রতীকে নির্বাচন করে ৩০১৭ ভোট পেয়েছেন তিনি।

১৯নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর এস এম শওকত আমীন তৌহিদ। তিনি আওয়ামীপন্থী হিসেবে পরিচিত। ঠেলাগাড়ি প্রতীকে নির্বাচন করে ৩৮৫২ ভোট পেয়েছেন তিনি।

২০নং ওয়ার্ডে টানা পঞ্চমবারের মতো জয় পেয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ। তিনি মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। লাটিম প্রতীকে নির্বাচন করে ৩১৩৯ ভোট পেয়েছেন তিনি।

২২নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ফজলে রাব্বি চৌধুরী। মিষ্টি কুমড়া প্রতীকে নির্বাচন করে ১২৯৩ ভোট পেয়েছেন তিনি।

২৩নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর মোস্তাক আহমেদ। তিনি আওয়ামী লীগপন্থী হিসেবে পরিচিত। টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীকে নির্বাচন করে ২০৭১ ভোট পেয়েছেন তিনি।

২৫নং জয় পেয়েছেন তাকবির ইসলাম পিন্টু। তিনি আওয়ামী লীগপন্থী হিসেবে পরিচিত। টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীকে নির্বাচন করে ৩৫১২ ভোট পেয়েছেন তিনি।

২৬নং ওয়ার্ডে নির্বাচিত হয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর ও মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য মোহাম্মদ তৌফিক বকস। ঠেলাগাড়ি প্রতীকে নির্বাচন করে ৫৩৮৭ ভোট পেয়েছেন তিনি।

২৮নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন রায়হান হোসেন। তিনি আওয়ামী লীগপন্থী হিসেবে পরিচিত। রেডিও প্রতীকে নির্বাচন করে ১৪১২ ভোট পেয়েছেন তিনি।

৩২নং ওয়ার্ডে নির্বাচিত হয়েছেন সিলেট সরকারি কলেজের ছাত্রলীগ নেতা রুহেল আহমদন। লাটিম প্রতীকে নির্বাচন করে ১৭০৯ ভোট পেয়েছেন তিনি।

৩৫নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম। ঘুড়ি প্রতীকে নির্বাচন করে ৩৮৮৩ ভোট পেয়েছেন তিনি।

৩৬নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হিরন মাহমুদ নিপু। ব্যাডমিন্টন র্যা কেট প্রতীকে নির্বাচন করে ১৯২২ ভোট পেয়েছেন তিনি।

৩৮নং ওয়ার্ডে জিতেছেন মো. হেলাল উদ্দিন। তিনি আওয়ামী লীগপন্থী হিসেবে পরিচিত। ঠেলাগাড়ি প্রতীকে নির্বাচন করে ১৯৫৭ ভোট পেয়েছেন তিনি।

বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত ৮ নেতা-কর্মীদের বিজয়ী হয়েছেন। যারা হলেন-

১নং ওয়ার্ডে তৃতীয়বারের মতো জয় পেয়েছেন সৈয়দ তৌফিকুল হাদী। মহানগর বিএনপির সাবেক এই সাংগঠনিক সম্পাদক দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে প্রার্থী হওয়ায় বহিষ্কৃত হন। ঝুড়ি প্রতীকে নির্বাচন করে ১৩৯৯ ভোট পেয়েছেন তিনি।

৬নং ওয়ার্ডে টানা পাঁচবারের মতো জয় পেয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর ফরহাদ চৌধুরী শামীম। তিনি মহানগর বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক। দলীয় সিদ্ধান্তে সদ্য বহিষ্কৃত হয়েছেন। লাটিম প্রতীকে নির্বাচন করে ৪১১৮ ভোট পেয়েছেন তিনি।

১৪নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম মুমিন। ওয়ার্ড বিএনপির এই সদস্য নির্বাচনে অংশ নেওয়ায় দল থেকে সদ্য বহিষ্কৃত হন।ঠেলাগাড়ি প্রতীকে নির্বাচন করে ৩৭৫২ ভোট পেয়েছেন তিনি।

১৮নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন এ বি এম জিল্লুর রহমান। ওয়ার্ড বিএনপির এই সদস্য নির্বাচনে অংশ নিয়ে দল থেকে বহিষ্কার হয়েছেন। মিষ্টি কুমড়া প্রতীকে নির্বাচন করে ২১০২ ভোট ভোট পেয়েছেন তিনি।

২১নং ওয়ার্ডে বিজয়ী হয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর আব্দুল রকিব তুহিন। তিনি নির্বাচনে অংশ নেওয়ায় তিনি বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত হয়েছেন। যিনি লাটিম প্রতীকে নির্বাচন করেছেন।

২৪নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন হুমায়ুন কবির সুহিন। ওয়ার্ড বিএনপির এই সদস্য দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে প্রার্থী হওয়ায় সদ্য বহিষ্কৃত হয়েছেন। ট্রাক্টর প্রতীকে নির্বাচন করে ৩০৩৮ ভোট পেয়েছেন তিনি।

৩৩নং ওয়ার্ডে জয় পান দেলোয়ার হোসেন। জেলা ছাত্রদলের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নির্বাচনে অংশ নিয়ে বহিষ্কৃত হয়েছেন। টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীকে নির্বাচন করে ৯৮৩ ভোট পেয়েছেন তিনি।

৩৯নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন আলতাফ হোসেন সুমন। তিনি দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে প্রার্থী হওয়ায় সিলেট জেলা ছাত্রদলের এই সভাপতি বহিষ্কৃত হয়েছেন। রেডিও প্রতীকে নির্বাচন করে ৩৩২৩ ভোট পেয়েছেন তিনি।

সিসিক নির্বাচনে জামায়াতের চার নেতা নির্বাচিত হয়েছেন। তার হলেন-

৭নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন সায়ীদ মো. আবদুল্লাহ। লাটিম প্রতীকে নির্বাচন করে ৩৩১৯ ভোট পেয়েছেন তিনি।

১৬নং ওয়ার্ডে তৃতীয়বারের মতো বিজয়ী হয়েছেন বর্তমান আব্দুল মুহিত জাবেদ। ট্রাক্টর প্রতীকে নির্বাচন করে ২১০৮ ভোট পেয়েছেন তিনি।

২৭নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন আব্দুল জলিল নজরুল। টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীকে নির্বাচন করে ১৮৫৪ ভোট পেয়েছেন তিনি।

৩৭নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন রিয়াজ মিয়া। টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীকে নির্বাচন করে ৮৪১ ভোট পেয়েছেন তিনি।

বাকি ৮ কাউন্সিলর স্বতন্ত্র। তারা হলেন-

৫নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর রেজওয়ান আহমদ। যিনি ঝুড়ি প্রতীকে নির্বাচন করে ২৪৮৯ ভোট পেয়েছেন।

২৯নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন মাজহারুল ইসলাম শাকিল। যিনি ঠেলাগাড়ি প্রতীকে নির্বাচন করে ১৯৯০ ভোট পেয়েছেন।

৩০নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন রকিব খান। যিনি টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীকে নির্বাচন করে ৯৫২ ভোট পেয়েছেন।

৩১নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন নজমুল হোসেন। যিনি ঠেলাগাড়ি প্রতীকে নির্বাচন করে ১০০৩ ভোট পেয়েছেন।

৩৪নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন জয়নাল আবেদীন। যিনি ক্যাপ প্রতীকে নির্বাচন করে ১৩৭৮ ভোট পেয়েছেন।
৪০নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন লিটন আহমদ। যিনি ব্যাডমিন্টন র্যা কেট প্রতীকে নির্বাচন করে ৮৯৬ ভোট পেয়েছেন।

৪১নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন ফখরুল আলম। যিনি ট্রাক্টর প্রতীকে নির্বাচন করে ৯১৭ ভোট পেয়েছেন।

৪২নং ওয়ার্ডে জয় পেয়েছেন মতিউর রহমান। যিনি টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীকে নির্বাচন করে ৯৬৯ ভোট পেয়েছেন।

শেয়ার করুন...











বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২৪
Design & Developed BY Cloud Service BD