বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:৪৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম ::
মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরুণ : রাজনীতিকদের প্রতি রাষ্ট্রপতি আত-তাক্বওয়া মাসজিদের সিরাতুল মুস্তাক্বিম কনফারেন্স আগামী শুক্রবার ও শনিবার বিদ্যুৎ-গ্যাস-চাল-তেলসহ নিত্যপণ্যের দাম কমাতে হবে: বাসদ সুনামগঞ্জ জেলা আ.লীগের সম্মেলন ১১ ফেব্রুয়ারি এইচএসসির ফল, সিলেট বোর্ডে পাসের হার ৮১.৪০ শতাংশ এইচএসসি ও সমমানে পাসের হার ৮৫.৯৫ এড.নাসির উদ্দিন খানকে নিজ এলাকায় গণ সংবর্ধনার আয়োজন তুরস্কে ভূমিকম্প : ৭ বছরের মেয়ে ছোট ভাইকে আঁকড়ে রাখল ‘ভূমিকম্প’ থেকে বাঁচার আমল জেনে নিন মিশরে কোরআন প্রতিযোগিতায় তৃতীয় বাংলাদেশি তানভীর রোহিঙ্গা সমস্যা দ্রুত সমাধান হবে, আশা চীনা রাষ্ট্রদূত বেশি গোল দিয়ে কোয়ার্টারে মুক্তিযোদ্ধা মামলা তুলে স্বামীর ঘরে অভিনেত্রী সারিকা শাহজালাল বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল অক্টোবরে উদ্বোধন এইচএসসির ফল প্রকাশ কাল, যেভাবে জানা যাবে




হারিছ চৌধুরীর মেয়েকে গলাটিপে মারার হুমকি

Untitled 3 samakal 63cff050d22c5 - BD Sylhet News




বিডিসিলেট ডেস্ক :: ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি ও বিএনপির সাবেক নেতা প্রয়াত হারিছ চৌধুরীর মেয়ে ব্যারিস্টার সামিরা তানজিন চৌধুরীকে গলাটিপে মারার হুমকি দেওয়া হয়েছে।

হারিছ চৌধুরীর চাচাতো ভাই এবং সিলেট জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি ও কানাইঘাট উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আশিক চৌধুরী এ হুমকি দিয়েছেন। গত ১৭ জানুয়ারি কানাইঘাট উপজেলায় আশিক চৌধুরীর বাবার নামে প্রতিষ্ঠিত রফিকুল হক চৌধুরী মেমোরিয়াল এতিমখানায় শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্যকালে তিনি এই হুমকি দেন। আশিক চৌধুরীর ওই বক্তব্যের একটি ভিডিও এরইমধ্যে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে আশিক চৌধুরীকে বলতে শোনা যায়, ‘হারিছ চৌধুরী মারা যাওয়ার পর তার মেয়ে সামিরা চৌধুরী এতিমখানার বিষয়ে খোঁজখবর রাখতে শুরু করে। চাচা কামাল উদ্দিন চৌধুরী ও চাচাতো ভাইদের সঙ্গে নিয়ে সামিরা এতিমখানা ধ্বংস করছে। তারা হারিছ চৌধুরীর পরিবার ধ্বংস করে ফেলবে। এখন কয়েকজন এতিমখানায় ঢুকে আর বের হয়। এতিমখানায় কী হয়, না হয়, দেখে। টাউট বাটপার কয়টা।’

এ সময় সামিরাকে উদ্দেশ্যে করে তাকে আরও বলতে শোনা যায়, ‘আমি তার বাপ। তার বাপ দুনিয়ায় নেই। অনেক ধৈর্য্য ধরেছি। গলাটিপে ধরবো। বাড়ি থেকে বের করে দেব।’

১৭ জানুয়ারির ওই ঘটনায় গত রোববার সিলেটের কানাইঘাট থানায় আশিক চৌধুরীর বিরুদ্ধে জিডি করতে যান সামিরার চাচাতো ভাই রাহাত চৌধুরী। এ বিষয়ে ওসি তাজুল ইসলাম জানান, সামিরার পক্ষে জিডি করতে একজন থানায় এসেছিলেন। কিন্তু সামিরাকে নিজে এসে কিংবা অনলাইনে জিডি করতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে আশিক চৌধুরী আবেগতাড়িত হয়ে ভাতিজিকে এসব কথা বলেছেন বলে দাবি করেছেন। তিনি সমকালকে বলেন, আমার ভাই নেই। সামিরার বাবা আমি। সে তার এক ভাইকে নিয়ে বাড়ির পরিবেশ নষ্ট করার চেষ্ঠা করছে। এজন্য অভিভাবক হিসেবে আবেগ থেকে গালমন্দ ও গলাটিপে মারার কথা বলেছি।

হারিছ চৌধুরীর বাড়ি কানাইঘাটের দিঘিরপাড় পূর্ব ইউনিয়নের দর্পনগর গ্রামে। পলাতক থাকাবস্থায় ২০২১ সালের ৩ সেপ্টেম্বর হারিছ চৌধুরী রাজধানীতে মারা যান বলে খবর প্রকাশ হয়। পরবর্তীতে চাচাত ভাই আশিক চৌধুরী ও মেয়ে ব্যারিস্টার সামিরা তার বাবার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন। সুত্র: সমকাল

শেয়ার করুন...











বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২২
Design & Developed BY Cloud Service BD