বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ০১:৫৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম ::
৮৬ বছর পর আয়া সোফিয়া মসজিদে তারাবি নামাজ ইবাদত বন্দেগি করেই রমজানের প্রথম দিন কাটিয়েছেন বেগম খালেদা জিয়া সাবেক আইনমন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরু এর মৃত্যুতে পরিবেশমন্ত্রীর শোক বড়লেখায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত আব্দুল বাছিতের পরিবারের পাশে নিসচা মুভমেন্ট পাস” অ্যাপ চালু করার ৩২ ঘণ্টার মধ্যে প্রায় পৌনে ৮ কোটি নক শাবির ল্যাবে ৫৭ জনের করোনা শনাক্ত আব্দুল মতিন খসরুর মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীসহ বিভিন্ন নেতৃবৃন্দের শোক আব্দুল মতিন খসরুর মৃত্যুতে সাবেক শিক্ষামন্ত্রী’র শোক প্রকাশ সিলেটে রোজাদারদের মধ্যে মহানগর যুবলীগের ইফতার বিতরণ এডভোকেট আব্দুল মতিন খসরু আর নেই রায়হানের পরিবারকে রমজান ও নববর্ষের উপহার পাঠালেন এসএমপি কমিশনার মুরগির খাঁচায় করে বাড়ি ফিরছে মানুষ ‘বিদেশগামীদের জন্য শিগগিরই বিশেষ ফ্লাইট’ “মুভমেন্ট পাস” অ্যাপে মাত্র ২৬ ঘণ্টায় প্রায় পৌনে ৩ কোটি নক পুলিশের সব ইউনিটকে কঠোর নির্দেশনা
cloudservicebd.com

বিরামহীন বৃষ্টিতে পাহাড়ি ঢলে আকস্মিক বন্যায় প্লাবিত বড়লেখা উপজেলা

মোহাম্মেদ শুভ, বড়লেখা থেকে:: শনিবার (২৯আগষ্ট) গত রাতের টানা ৬-৮ঘন্টার ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢল থেকে নেমে আসা আকস্মিক বন্যাতে প্লাবিত হয়ে বড়লেখা শহরের বিভিন্ন বাসা,বাড়ি,দোকান পাট ও গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাগুলো পানি ঢুকে পড়ে ব্যপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

জানা যায় গতকাল রাত ১১/৩০ মিনিট থেকে বৃষ্টি শুরু হয় প্রায় সকাল পর্যন্ত বৃষ্টি হওয়ার কারণে উচ্চতা’র পানি নিচের দিকে বেয়ে আসে সেই সাথে বড়লেখা উপজেলা চান্দগ্রাম রোড, ফায়ার সার্ভিস স্টেশন, উপজেলা কোর্ট, উপজেলা কেন্দ্রীয় মসজিদ, উপজেলা চত্ত্বর-উপজেলা অডিটোরিয়াম, ক্লিনিক, পশুহাসপাতাল, সরকারি হাসপাতাল, বড়লেখা থানা,
ডায়াগনস্টিক সেন্টার সহ উত্তর চৌমুহনী থেকে বড়লেখা সরকারি কলেজ পর্যন্ত পানিতে তলিয়ে যায়।

ব্যবসায়ীরা জানান, এই পানি’র কারণে আমাদের দোকানে’র অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, উনারা জানান বিগত দিনে পানি আরো বেশি থাকতো, কিন্তু এইবার খাল খনন করে দেওয়ার কারণে পানি তারাতাড়ি নেমে যাচ্ছে নিচের দিকে।

উনারা আরো জানান, পানি আরো গতিতে নেমে যেতো কিন্তু ড্রেন গুলায় মানুষ ময়লা-আবর্জনা ফেলবার কারণে পানি পরিমাণ মতো যেতে পারচ্ছে না। উনারা আশাবাদী যদি বৃষ্টি না দেয় তা হলে অল্প সময়ে ভিতরে পানি নেমে যাবে।

উল্যেখ্য,২০১৭সন থেকে নিয়ে বড়লেখা পৌর:শহরে ড্রেনেজ ব্যবস্থার কারণে বড়লেখা শহরবাসী অনেকটা বন্যা মুক্ত ছিলো বলা যায় (বৃষ্টি জমে থাকলেও ২/১ঘন্টার ভেতরে পুনরায় চলে গেছে) ড্রেনেজের পানি নিষ্কাসনের রাস্থাটি (কিছু কিছু সুবিধাভোগী বাসা,বাড়ির মালিক কতৃক) পুনরায় মাটি ভরাট সহ ড্রেনেজে বিভিন্ন ময়লা আবর্জনা দিয়ে পানি নিষ্কাসনের স্বাভাবিক রাস্তাটি অনেকটা সরু করে বাধাগ্রস্ত করে তুলেন।

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD