সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০২:১৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম ::
কুলাউড়ায় প্রেমিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রেমিক জেলে শাহরুখকে টপকে গেলেন এরতুগ্রুল দিল্লি গিয়ে মা-বাবার কবর জিয়ারত করলেন শাহরুখ নারীদের জন্য ‘পদ্মাবতী’ চালু করল পদ্মা ব্যাংক ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে ডাকটিকিট প্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বড়লেখায় বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে ৭ই মার্চ দিবস উদযাপন ৭ মার্চের প্রতিটি বাক্য বাঙালির অনুপ্রেরণার উৎস – সরওয়ার হোসেন সব নির্দেশনা সাতই মার্চের ভাষণেই ছিল: প্রধানমন্ত্রী কাউন্সিলর সেলিমের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার ও উপশহরে খেলার মাঠে মেলা বন্ধে মানববন্ধন ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ ও জাতিসংঘে চূড়ান্ত সুপারিশ প্রাপ্তিতে আনন্দ উদযাপন করল সিলেট জেলা পুলিশ ছাতকে নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে ৭ই মার্চ পালিত সিলেটে ইনজেকশন দিয়ে স্ত্রী হত্যা,স্বামী আটক গোলাপগঞ্জে যথাযোগ্য মর্যাদায় ৭ই মার্চ পালিত অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের প্রতি সাবেক ছাত্রদের সম্মাননা প্রদান খেলার মাঠে মেলা: প্রতিবাদ করায় কাউন্সিলর সেলিমের বিরুদ্ধে মামলা
cloudservicebd.com

জাতীয় শোক দিবস:বিভিন্ন এতিমখানায় খাবার পাঠালেন মাশরাফি

20200815 201309 - BD Sylhet News

বিডি সিলেট নিউজ ডেস্ক:: জাতীয় শোক দিবসে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, স্বাধীনতার স্থপতি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করেছে বাংলাদেশের সর্বস্তরের মানুষ। বিশেষ এই দিন উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে নিজ এলাকার বিভিন্ন এতিমখানায় খাবার পাঠিয়েছেন নড়াইল-২ আসনের এমপি ও জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

শনিবার (১৫ আগস্ট) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নড়াইল জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হাফিজ খান মিলন।

তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে মাশরাফির সৌজন্যে নড়াইলের ১৫টি এতিমখানায় প্রায় সাড়ে ৫০০ এতিমের মাঝে উন্নতমানের খাবার বিতরণ করা হয়। এসময় সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন নড়াইল জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নিজামুদ্দিন খান নিলু।

শোক দিবস উপলক্ষে সারা দেশের মতো নড়াইল জেলাতেও রাজনীতিক, পেশাজীবী, সাংস্কৃতিক কর্মীসহ নানা শ্রেণি পেশার মানুষ জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

ফুলে ফুলে ভরে উঠে শিল্পকলা জাতির পিতার প্রতিকৃতি। পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ ১৫ আগস্টে নিহত শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মিলাদ মাহফিল ও দোয়ার আয়োজন করা হয়।১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট সেনাবাহিনীর একদল বিপথগামী কর্মকর্তা ও সৈনিকের হাতে সপরিবারে জীবন দিতে হয় বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের নায়ক, তৎকালীন রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে।

১৫ আগস্ট ইতিহাসের নিষ্ঠুরতম এই হত্যাকাণ্ডে আরও শিকার হয়েছিলেন বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, বঙ্গবন্ধুর একমাত্র ভাই শেখ আবু নাসের, বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠপুত্র শেখ কামাল, শেখ জামাল, শিশুপুত্র শেখ রাসেল, পুত্রবধূ দেশবরেণ্য সুলতানা কামাল ও রোজী জামাল, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মণি ও তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী বেগম আরজু মণি, বঙ্গবন্ধুর ভগ্নিপতি ও তার মন্ত্রিসভার অন্যতম সদস্য কৃষক নেতা আবদুর রব সেরনিয়াবাত, তার ছোট মেয়ে বেবী সেরনিয়াবাত, কনিষ্ঠ শিশুপুত্র আরিফ সেরনিয়াবাত, নাতি সুকান্ত আবদুলাহ বাবু, ভাইয়ের ছেলে শহীদ সেরনিয়াবাত, আবদুল নঈম খান রিন্টু ও বঙ্গবন্ধুর জীবনরক্ষায় এগিয়ে আসা প্রধান নিরাপত্তা অফিসার কর্নেল জামিল উদ্দিন আহমেদ। সৌজন্যে:বাংলানিউজ

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০১৭ - ২০২০
Design & Developed BY Cloud Service BD