সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ০৫:৩৫ অপরাহ্ন

শিরোনাম ::
আসছে বর্ষা, সিলেটে ঝুঁকি নিয়ে টিলায় বসবাস শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে সিলেট জেলা আ.লীগের কর্মসূচী ঘোষণা জগন্নাথপুরে ৩ দিন ধরে ফেরি চলাচল বন্ধ, চরম দুর্ভোগে যাত্রীরা জাপানি দুই শিশু: বাবার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার আবেদন সিলেটে একদিনে সড়ক দূর্ঘটনায় ৪ জন নিহত আইসিইউতে ভর্তি বিএনপি নেতা মঈন খান পুকুরে টাকা ডুবলেই ‘স্বপ্ন পূরণ পানির নিচে খাদেমের কারসাজি’ সিলেট নগরীতে ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু সিলেটে কুড়িয়ে পাওয়া শিশু উর্মির অভিভাবকের সন্ধান চায় পুলিশ বিশ্বকাপ ট্রফি ৫১ দেশের উদ্দেশে যাত্রা শুরু ‘এখানে কিছু টাকা আছে, এটা দিয়ে আমার দাফন-কাফন করিও’ সিলেটে পাহাড়ি ঢলে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, দুর্ভোগে মানুষ সিলেটে গাঁজাসহ মাদক কারবারি আটক বড়লেখায় বর্হিবিশ্ব জাতীয়তাবাদী ফাউন্ডেশন নেতৃবৃন্দদের সংবর্ধনা প্রদান হবিগঞ্জে ভারতীয় চাপাতাসহ চোরাকারবারি আটক




ঢাকায় এসে সিএনজি চালানো শিখলেন নিউইয়র্কের পুলিশ সার্জেন্ট!

Screenshot 20220322 020339 Gallery - BD Sylhet News




বিডি সিলেট ডেস্ক:: নিউইয়র্ক প্রবাসী কবি রাজুব ভৌমিক। তিনি নিউইয়র্কের পুলিশ বিভাগে সার্জেন্ট পদে কর্মরত আছেন। পাশাপাশি সেখানকার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে পাঠদান করেন। সাহিত্য জগতের পর এবার অভিনয়ে অভিষেক হতে যাচ্ছে তার। সম্প্রতি ‘পাশা’ শিরোনামের একটি ওয়েব ফিল্মের শুটিং শেষ করেছেন। চলতি বছরের মাঝামাঝি সময়ে ডিসনি-হটস্টার প্লাটফর্মে ‘পাশা’ মুক্তি পাবে।

তানিম আহমেদের পরিচালনায় পাশার মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন রাজুব ভৌমিক। এ ছাড়াও বিভিন্ন চরিত্রে আরও অভিনয় করেছেন সরফ আহমেদ জীবন, ডন, জান্নাতুন নূর মুন, মৌমিতা মৌ, ইকবাল, হিমেলসহ অনেকেই।

রাজুব ভৌমিক বলেন, ‘পাশার ডুয়েল পার্সোনালিটি এবং দুটো চরিত্রই ভিন্ন ধরনের। এই চরিত্রের জন্য আমাকে ঢাকার রাস্তায় সিএনজি চালানো শিখতে হয়েছে। পুরো প্রজেক্টিই চ্যালেঞ্জিং ছিল। তবে আমি বেশ উপভোগ করেছি। আমার সর্বোচ্চটা দেওয়ার চেষ্টা করেছি। আমার সব কো-আর্টিষ্টরা আমাকে যথেষ্ট সহযোগিতা করেছে। আশা করি দর্শকের ভাল লাগবে।’

পরিচালক তানিম আহমেদ বলেন, ‘পাশা’য় দর্শকের জন্য বেশ কয়েকটা চমক আছে। সবাই অসাধারণ অভিনয় করেছে, গল্পটাও অসাধারণ। রাজুব দাদাকে এবার দর্শকরা নতুনভাবে দেখতে পাবে। এ ছাড়াও এই ফিল্মে সোনু কাক্কারের কণ্ঠে একটি অসাধারণ গান দর্শকেরা শুনতে ও দেখতে পারবেন।’

জনক রাজুব ভৌমিক। বাংলা সাহিত্যের জনপ্রিয় সংকলন আয়না সনেট থেকে পরিবর্তিত আয়না সংগীত গানের প্রতিটি লাইন দশ বর্ণের, গানের মুখ-স্থায়ী উল্টোদিক থেকে গাইলে গানের প্রথম অন্তরা হয়। দ্বিতীয় অন্তরা দুই লাইনের, যা উল্টোদিকে গাইলে চার লাইন হয়। সর্বমোট ছয় লাইনের বা ষাট বর্ণের গান এবং দুই দিক থেকেই গানের সুর করা যাবে। যেহেতু গানগুলো আয়নার মতো এবং দুই দিক থেকেই গানের সুর করা যায়, তাই এ গানগুলোর নাম ‘আয়না সংগীত’ হয়েছে।

২০২০ সালে ভাষার মাস ফেব্রুয়ারিতে আয়না সংগীত লেখা শুরু করেন কবি রাজুব ভৌমিক। আয়না সংগীতের প্রথম গান ‘যায় প্রাণ গো’ গেয়েছিলেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী ন্যান্সি। এরপর গেলো বছরের শেষের দিকে ‘চুপিচুপি ভালোবেসে’ শিরোনামের আয়না সংগীতের মাধ্যমে প্রথমবারের মতো বাংলা গানে কণ্ঠ দিয়েছেন বলিউডের জনপ্রিয় প্লেব্যাক সিঙ্গার সোনু কাক্কার।

শেয়ার করুন...











বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২২
Design & Developed BY Cloud Service BD