মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ১২:৪০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম ::
কানাইঘাটে বাঘের থাবা ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলার পুরস্কার বিতরণ উপজেলা পরিষদ এসোসিয়েশন সিলেট বিভাগের সভাপতি আশফাক,সম্পাদক ফজলুর সিলেটে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর বাই সাইকেল ও সেলাই মেশিন বিতরণ জাতীয় মহিলা সংস্থা সিলেটের চেয়ারম্যানের সাথে উপজেলার তথ্যসেবা কর্মকর্তার সৌজন্য সাক্ষাৎ সিলেট নগরীর কাজীটুলায় নববধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ,স্বামী পলাতক প্রয়ান দিবসকে সামনে রেখে শেষ হলো মাসব্যাপী ভবমেলা বাইডেন মঙ্গলবার নতুন মন্ত্রী পরিষদের নাম ঘোষণা করবেন পিযুষ কান্তি দের নামে চাঁদা দাবি, থানায় জিডি কাঁকন দে যুগ্ন জেলা ও দায়রা জজ পদে পদোন্নতিতে বিদায় সংবর্ধনা সিলেটের পুলিশ সুপারের সাথে ডেইলিবিডি নিউজ ও শ্রীহট্ট টকস্ পরিবারের সৌজন্য সাক্ষাৎ আজিজ আহমদ সেলিম স্মৃতি অভ্যন্তরীণ ক্রীড়া প্রতিযোগিতা শুরু প্রিয় নানাভাইকে’ হারিয়ে আজহারীর হৃদয়ছোঁয়া স্ট্যাটাস সিলেটে তরুণ-তরুণীদের ফ্রি কম্পিউটার প্রশিক্ষণ দেবে অনটেক আইটি ২৫ পৌরসভায় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা,ভোট ২৮ ডিসেম্বর কোতোয়ালী মডেল থানার ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত
cloudservicebd.com

সিলেটের কানাইঘাটে গণধর্ষণের শিকার গৃহবধূর বাড়িতে এসপি মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন

20200706 173130 - BD Sylhet News

কানাইঘাট প্রতিনিধি:: গত ১ জুলাই গভীর রাতে সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার দক্ষিণ বাণীগ্রাম ইউনিয়নের ব্রাহ্মণ গ্রামের গৃহবধূ গণধর্ষণের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন সিলেটের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম।

আজ সোমবার (৬ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সরেজমিনে তিনি পাশবিকতার ওই গৃহবধূর বাড়িতে যান। ভিকটিম ও তার স্বামী হারুন রশিদসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

এ ঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে বলে সবাইকে আশ্বস্ত করেন পুলিশ সুপার। ভিকটিমের বসতঘর মেরামতের জন্য জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ১০ হাজার টাকার আর্থিক অনুদান প্রদানের ঘোষণাও দেন তিনি। এছাড়া থানা পুলিশের পক্ষ থেকে ভিকটিমের পরিবারকে ১ মাসের খাদ্যসামগ্রী ও বিভিন্ন ধরণের ফল প্রদান করা হয়।

জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন ভিকটিমের পরিবারকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেওয়া হবে উল্লেখ করে বলেন, ‘এ ঘটনার মূল হোতা ধর্ষণকারী আজাদুর রহমানকে থানার পুলিশ ও তার সহযোগী মোক্তারকে র‌্যাব-৯ ইতোমধ্যে গ্রেপ্তার করেছে। তারা তাদের অপরাধ স্বীকার করেছে। অন্য কারও সম্পৃক্ততা পেলে তাকেও আইনের আওতায় আনা হবে। ভবিষ্যতে এলাকায় এ ধরণের জঘন্য কর্মকাণ্ডের পুণরাবৃত্তি যাতে না ঘটে, সেটা নিশ্চিত করা হবে। ধর্ষণ, বলাৎকার, অসামাজিক কার্যকলাপ এবং যারা মাদক ব্যবসার সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকবে, তারা যতই প্রভাবশালী হোক না কেন কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। এদের বিরুদ্ধে পুলিশ জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে।

এলাকায় এসব কার্যকলাপের সঙ্গে যারা জড়িত তাদের তথ্য পুলিশকে দেওয়ার জন্য উপস্থিত সবার প্রতি অনুরোধ জানান পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে পুলিশ সুপারের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন, কানাইঘাট সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আব্দুল করিম, থানার ওসি শামসুদ্দোহা পিপিএম, ওসি (তদন্ত) আনোয়ার জাহিদ, বাণীগ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাসুদ আহমদ ও জেলা ডিবি পুলিশের কর্মকর্তারা। পরে পুলিশ সুপার বানীগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ পরিদর্শন করে সুধীজনের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০১৭ - ২০২০
Design & Developed BY Cloud Service BD