শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:৪৯ অপরাহ্ন

শিরোনাম ::
সিলেট মহানগর সংবাদপত্র হকার্স সমবায় সমিতি’র নির্বাচিত কমিটির শপথ ও অভিষেক সম্পন্ন যেকোনো মূল্যে বৈশ্বিক শান্তি বজায় রাখার আহ্বান রাষ্ট্রপতির ওসমানীনগরে বিয়ের জন্য শিশু অপহরণ, তরুণী গ্রেফতার সিলেটে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা সেই নারী পুলিশ ক্লোজড বড়লেখায় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত গণেশের পাশে নিসচা’র নেতৃবৃন্দ নবীগঞ্জে যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে, নিহত ১ রবিবার থেকে সারাদেশে ফের শুরু টিসিবির পণ্য বিক্রি মালয়েশিয়ায় খালি হচ্ছে নেপালি গার্ড, দুয়ার খুলছে বাংলাদেশিদের শেখ মণির জন্মদিনে জেলা যুবলীগের মিলাদ ও দোয়া মাহফিল আয়রনের অভাব পূরণে করণীয় ৬৬ বছর বয়সে বধূ সেজে ভাইরাল নায়িকা রোজিনা সিলেটে আ.লীগের বিদ্রোহী আরও ৫ নেতা বহিষ্কার যেসব নামাজে ৫০ বছরের গুনাহ মাফ হয় মেসির চার তারকা হোটেল ভাঙার নির্দেশ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে রাজনৈতিক উস্কানি আছে : কাদের
cloudservicebd.com

প্রেমিককে নিয়ে স্বামীকে হত্যার পর নিজেই লাশ নিলেন শ্বশুরবাড়িতে

image 155433 1637685146 - BD Sylhet News

বিডি সিলেট ডেস্ক :: রাজধানীর আশুলিয়ায় প্রেমিককে নিয়ে স্বামীকে হত্যার ঘটনায় স্ত্রীসহ ৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) দুপুরে নিহতের স্ত্রী আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। এ সময় বাকিদের দুদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

নিহত স্বামী প্রতীক হাসান টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার কাজলা গ্রামের বিল্লাল মিয়ার ছেলে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, নিহত প্রতীক হাসানের (৩০) স্ত্রী লিজা আক্তার (১৮), তার মা লাকী বেগম, দাদি ফুলজান ও চাচাতো বোন জামাই সুজন মিয়া ও প্রেমিক সেলিম।

পুলিশ এবং স্বজনদের সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রায় এক বছর আগে ঘাটাইল উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের ঘোনার দেউলি গ্রামের লেবু মিয়ার মেয়ে লিজা আক্তারের সঙ্গে প্রতীক হাসানের বিয়ে হয়। বিয়ের পরই ঢাকার আশুলিয়া গিয়ে প্রতীক একটি পোশাক কারখানায় চাকরি নেন। লিজা ওখানেই গৃহপরিচারিকার কাজ করতেন। এক পর্যায়ে একই বাসায় সিরাজগঞ্জের সেলিম নামে এক ভাড়াটিয়া যুবকের সঙ্গে তার পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

এদিকে গত শনিবার এ বিষয় নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। এ সময় লিজা ও পরকীয়া যুবক মিলে প্রতীক হাসানকে মারধর ও শ্বাসরোধে হত্যা করে। পরে সোমবার (২২ নভেম্বর) মরদেহ শ্বশুরবাড়ি নিয়ে গিয়ে স্ট্রোক করে মারা গেছেন বলে তার শাশুড়িকে জানান। বিষয়টি সন্দেহ হলে তাদের আটক করে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। পরে পুলিশ তাদের আটক করে থানায় নিলে লিজা আক্তার পরকীয়া প্রেমিককে নিয়ে স্বামীকে হত্যার কথা স্বীকার করেন। এ ঘটনায় ওইদিন নিহত প্রতীকের বাবা থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। সেই মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

সাগড়দিঘী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মনিরুজ্জামান জানান, লিজার বক্তব্য অনুযায়ী লিজা এবং পরকীয়া প্রেমিক শাহীন শ্বাসরোধ করে তার স্বামী প্রতিক হাসানকে হত্যা করে। ঘটনাটি আশুলিয়া এলাকায় ঘটেছে। তাই আমরা আটক লিজাসহ আরও দুজনকে আশুলিয়া থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছি। এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় আশুলিয়া থানায় মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) প্রতীক হাসানের বাবা বিল্লাল হোসেন বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।

আশুলিয়া থানার উপপরিদর্শক কায়সার হামিদ জানান, ঘাতক লিজাসহ আরও ৩ জনের নামে মামলা হয়েছে। লিজা, লিজার মা ফাতেমা ও দাদি লাকিকে আদালতে মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। অপর আসামি শাহীন পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। সৌজন্যে আরটিভি নিউজ।

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD