বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০১:২৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম ::
আগামী বছরের এসএসসি ফেব্রুয়ারির শুরুতে হচ্ছে না : শিক্ষামন্ত্রী ২০২২ সালে জাপানি বিনিয়োগের নতুন ঢেউয়ের আশা মোমেনের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে আরও ৩৫ লাখ ফাইজার ভ্যাকসিন দান করেছে ট্যুরিজম ক্লাবের সাদা পাথর পর্যটনস্পট পরিচ্ছন্নতা ক্যাম্পেইন সম্পন্ন ওসমানীনগরে দুই সন্তানের জননীর আত্মহত্যা ছাতকে ইউপি নির্বাচনে ১০ ইউনিয়নে প্রতিক বরাদ্দ আজ কমলগঞ্জে গলাকাটা অবস্থায় বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার কাবুলে নারীদের বিক্ষোভ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প পুরস্কার পাচ্ছে ২৩ প্রতিষ্ঠান গোশতের ঘটনায় তালাক দেয়া সেই নববধূকে আবারো বিয়ে ২৮ অক্টোবর কেন ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ হবে ‘মডেল’ তৈরির নামে বিবস্ত্র ছবি তুলে টাকা আদায়, তরুণী গ্রেফতার শিশুরাই হতে পারে জলবায়ু পরিবর্তনের নিয়ামক : স্পিকার মাদকের নিত্যনতুন রুট, বাংলাদেশ-ভারত বৈঠক পাটুরিয়ায় ফেরী দূর্ঘটনায় ৭ সদস্যের তদন্ত কমিটি
cloudservicebd.com

সিলেট ওসমানী হাসপাতালে স্ত্রীর মরদেহ রেখে স্বামী উধাও!

Screenshot 20210923 034805 Facebook - BD Sylhet News

বিডি সিলেট ডেস্কঃ

সিলেট ওসমানী হাসপাতালে স্ত্রীর মরদেহ রেখে স্বামী উধাও অভিযোগ ওঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। নিহত রুমী বেগম (২১) সিলেটের দক্ষিণ সুরমার মোগলাবাজার ইউনিয়নের তিরাশি গাঁওয়ের খোকন মিয়ার স্ত্রী। বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় পুলিশকে না জানিয়েই বসতঘর থেকে ওড়না পেঁচানো রুমির নিথর দেহ উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন। সেখানে নেয়ার পর দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এরপর স্ত্রীর মরদেহ হাসপাতালে রেখে উধাও হয়ে যান স্বামী খোকন মিয়া। তিনি ওই গ্রামের লাল মিয়ার ছেলে।

রুমীর ভাই জুনেদ আহমদ সাংবাদিকদের বলেন, বিয়ের পর কিছুদিন ভাল চললেও সম্প্রতি রুমির ওপর স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন বিভিন্ন ইস্যুতে নির্যাতন করে আসছিলেন। এসব জেনেও তারা চুপ ছিলেন।

বুধবার সকালে মাকে ফোন করে কান্নাভেজা কণ্ঠে তার বোন বলেন, ‘আমাকে বাড়িতে নিয়ে যাও, ওরা মেরে ফেলবে। ’ এরপর সন্ধ্যায় খোকন ফোন করে জানায় রুমী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তারা তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছে। তার বোনকে হত্যা করা হয়েছে দাবি করে জড়িতদের শাস্তি দাবি করেন জুনেদ আহমদ।

এ ব্যাপারে এসএমপির মোগলাবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শামসুদ্দোহা বলেন, বুধবার রাত ১০টার দিকে মরদেহ দেখতে তিনি হাসপাতালে যান। সুরতহাল প্রতিবেদনে আত্মহত্যা ধারণা করা হলেও হাতে ছিলা রকমের দু’টি আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। মৃত্যুর ঘটনায় গৃহবধূর বাবারবাড়ি ও শ্বশুরবাড়ির দুই রকম বক্তব্য পাওয়া গেছে। যে কারণে বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হবে এবং ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, রুমী বেগমের বাবারবাড়ি সিলেট সদরের খাদিমনগর ইউনিয়নের সাহেবের বাজার এলাকায়। প্রায় ‍দুই বছর আগে রুমি ও খোকনের বিয়ে হয়। তাদের ঔরসজাত এক বছরের একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে। স্বামী-স্ত্রী ও পরিবারের লোকজনের মধ্যে বনিবনাও ছিল না। এসব বিষয় সামনে রেখে নির্যাতনের অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD