রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:১২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম ::
প্রতিবন্ধী রাজনের করুণ জীবিকাযুদ্ধ যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে দেশে ফিরলেন সেনাবাহিনী প্রধান নির্বাচন সরকারের অধীনে নয়, নির্বাচন হয় কমিশনের অধীনে : তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বাংলাদেশে এসে গান গাইতে চান ‘মাগে হিতে’র শিল্পী সিলেটে আঞ্জুমানে মুফিদুল ইসলাম’র যাত্রা শুরু স্কটল্যান্ডে সহকর্মীর ছুরিকাঘাতে বিয়ানীবাজারের যুবক খুন মৌলভীবাজারে ভাইকে বাঁচাতে ভাইয়ের কিডনি দান সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের নতুন সদস্য পদে আবেদন আহ্বান এসপিএল ২০২১ আয়োজক কমিটির সাথে ডা: শিপলুর মতবিনিময় সিলেটের করোনা যোদ্ধাদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর উপহার প্রদান ‘মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের’ অনুষ্ঠান বন্ধ করলেন ওবায়দুল কাদের বিমানবন্দরে আরটি-পিসিআর ল্যাব স্থাপনের সাইট পরিদর্শনে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কয়েসের পদ বহাল সিলেট জেলা আ’লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত টিকার দাবিতে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে প্রবাসীদের বিক্ষোভ
cloudservicebd.com

তিন হাজার হারানো মোবাইল খুঁজে দিয়েছেন এএসআই আবদুল কাদের

Screenshot 20210914 230359 Facebook - BD Sylhet News

বিডি সিলেট ডেস্কঃ 

গুলশান থানার এএসআই আবদুল কাদের। হারানো মোবাইল খুঁজে বের করাই তাঁর অন্যতম নেশা। ছিনতাই অথবা হারিয়ে যাওয়া তিন হাজার মোবাইল খুঁজে তুলে দিয়েছেন প্রকৃত গ্রাহকের হাতে।

মোবাইল হারানোর বিষয়ে সাধারণ ডায়েরি হলেই ডাক পড়ে তাঁর। এরপর তা উদ্ধারে মাঠে নেমে পড়েন তিনি।

২০০৫ সালে কনস্টেবল হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন কাদের। ১৬ বছরের চাকরিজীবনে অর্ধেকের বেশি সময় পার করেছেন হারানো মোবাইল উদ্ধারের নেশায়। কোনোটিতে সময় নিয়েছেন পাঁচ দিন, কোনোটির জন্য লেগেছে প্রায় দুই বছর। ২০১৩ সাল থেকে এ পর্যন্ত তিন হাজার হারানো মোবাইল উদ্ধার করেছেন তিনি। গত আড়াই বছরে শুধু গুলশান থানাতেই জিডির বিপরীতে ৬০০ মোবাইল প্রকৃত গ্রাহকের হাতে ফিরিয়ে দিয়েছেন তিনি।

আবদুল কাদের বলেন, মোবাইলের দাম কত, সেটা কোনো বিষয় নয়। একজন সিএনজিচালক, একজন শ্রমিক বা একজন গার্মেন্টস কর্মী, তাঁদের মোবাইলের যে দামই হোক না কেন, হারিয়ে গেলে তা নতুন করে কেনার মতো সচ্ছল তাঁরা নন। তা ছাড়া প্রাইভেসির কারণে টাকাপয়সা হারানোর চেয়েও মোবাইল হারালে মানুষ বেশি বিপাকে পড়ে। জিডি করার পর কোনো ব্যক্তির মোবাইল উদ্ধার করে তাঁকে ফিরিয়ে দিলে অনেক খুশি হন। অপরকে খুশি করতে পারাটাই তাঁর আনন্দ।

প্রতিদিনই দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রায় ৫০০ অভিযোগ আসে কাদেরের কাছে। নিজের থানা তো বটেই, অন্য যেকোনো স্থানে মোবাইল হারালেও ভুক্তভোগীরা আসেন গুলশান থানায়। এরই মধ্যে পুলিশ বিভাগ থেকে ১৬ বার পুরস্কৃত হয়েছেন তিনি।

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD