রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:০১ অপরাহ্ন

শিরোনাম ::
‘দেশের প্রতিটি উপজেলায় প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের শাখা খোলা হবে’ সিলেট নগরীর ভাঙ্গাচুরা সড়ক অবিলম্বে মেরামতের দাবী জানিয়েছে জাগো সিলেট আন্দোলন অনিবন্ধিত ৫৯ আইপিটিভি বন্ধ ১০ কোটিতে বিক্রি হল ১ টাকার কয়েন! তৃণমূলের নেতাকর্মীরা আওয়ামী লীগের প্রাণ, অতিথি পাখি নয় : তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী খালেদা জিয়ার সাজা আরও ৬ মাস স্থগিত এসএমপি’র টিলাগড় পয়েন্টে পুলিশ বক্সের উদ্বোধন সিলেট জেলা আ’লীগ ও জেলা পরিষদের সদস্যদের বঙ্গবন্ধুর ম্যুারালে শ্রদ্ধা নিবেদন গোয়াইনঘাটে ১ কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার আজ থেকে ৪ ঘণ্টা বন্ধ সিএনজি স্টেশন বাদাঘাটে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা সম্পন্ন সুনামগঞ্জে যাত্রীবাহী বাস নিযন্ত্রণ হারিয়ে আহত ৩০ সন্ধ্যায় আইপিএলে মুখোমুখি মুম্বাই-চেন্নাই ১৯৭০ সালে আজকের এই দিনে সিলেটে জন্মগ্রহণ করেছিলেন সালমান শাহ বিশ্বনাথে ১৫ বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেফতার
cloudservicebd.com

হবিগঞ্জে চার ঘন্টার ব্যবধানে বাবা-ছেলের মৃত্যু

FB IMG 1629713072550 - BD Sylhet News

বিডি সিলেট ডেস্কঃ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে সিলেট একটি বেসরকারি হাসপাতালে মারা যান হবিগঞ্জ সদর উপজেলার রাজিউড়া ইউনিয়নের মথুরাপুর গ্রামের গোলাম কিবরিয়া ওরফে দিলু মাষ্টার। বাবার মৃত্যুর শোকে চার ঘন্টার ব্যবধানে ছেলে মোঃ রুবেল মিয়াও হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর কুলে ঢলে পড়েন।

রবিবার (২২ আগস্ট) দিবাগত রাত সাড়ে ১০ টায় মারা যান বাবা ও একই রাত আড়াটায় মৃত্যু বরণ করেন ছেলে রুবল মিয়া। এই সংবাদটি জানাজানি হলে এলাকায় জুড়ে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দিলু মাষ্টার হৃদরোগে আক্রান্ত হলে ছেলে রুবেল মিয়া পিতাকে সিলেট ইবনে সিনা হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে রবিবার দিবাগত রাত আড়াইটায় মারা গেলে এম্বুলেন্স করে পিতার লাশ বাড়ীতে নিয়ে আসেন ছেলে রুবেল মিয়া। বাড়ীতে আসার পর অতিশোকে কান্নাকাটি করতে করতে চার ঘন্টা পর তিনিও অজ্ঞান হয়ে যান। দীর্ঘক্ষণ পরেও আর জ্ঞান ফিরেনি, তাকে নিয়ে যাওয়া হয় হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে। ততক্ষণে ছেলে রুবেল মিয়া চলে যান না ফেরার দেশে।

এনজিও কর্মকর্তা রাজিউড়া গ্রামের ইকবাল আহমেদ বলেন, দিলু স্যার ভাদগুড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক হিসেবে দীর্ঘদিন সুনামের সহিত শিক্ষকতা করেছেন। ছোট বেলায় প্রাইভেট পড়েছি স্যারের কাছে। তিনি খুব ভালো মানুষ ছিলেন। এক কথায় সাদা মনের মানুষ।

স্থানীয় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফয়জুল ইসলাম ফজল বলেন, দিলু মাষ্টার দীর্ঘদিন যাবত শিক্ষকতার পেশায় নিয়োজিত ছিলেন। বর্তমানে তিনি অবসরে বাড়ীতেই ছিলেন। তার ছেলে মোঃ রুবেল মিয়া গ্রাম্য চিকিৎসক হিসেবে উচাইল বাজারে একটি ঔষুধের দোকান আছে। বাবা-ছেলের মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD