রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৫২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম ::
প্রতিবন্ধী রাজনের করুণ জীবিকাযুদ্ধ যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে দেশে ফিরলেন সেনাবাহিনী প্রধান নির্বাচন সরকারের অধীনে নয়, নির্বাচন হয় কমিশনের অধীনে : তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বাংলাদেশে এসে গান গাইতে চান ‘মাগে হিতে’র শিল্পী সিলেটে আঞ্জুমানে মুফিদুল ইসলাম’র যাত্রা শুরু স্কটল্যান্ডে সহকর্মীর ছুরিকাঘাতে বিয়ানীবাজারের যুবক খুন মৌলভীবাজারে ভাইকে বাঁচাতে ভাইয়ের কিডনি দান সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের নতুন সদস্য পদে আবেদন আহ্বান এসপিএল ২০২১ আয়োজক কমিটির সাথে ডা: শিপলুর মতবিনিময় সিলেটের করোনা যোদ্ধাদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর উপহার প্রদান ‘মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের’ অনুষ্ঠান বন্ধ করলেন ওবায়দুল কাদের বিমানবন্দরে আরটি-পিসিআর ল্যাব স্থাপনের সাইট পরিদর্শনে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কয়েসের পদ বহাল সিলেট জেলা আ’লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত টিকার দাবিতে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে প্রবাসীদের বিক্ষোভ
cloudservicebd.com

পুলিশের পোশাক খোলার হুমকি দেওয়া ছাত্রদল সভাপতি রনি গ্রেপ্তার

Screenshot 20210822 012837 Facebook - BD Sylhet News

বিডি সিলেট ডেস্কঃ নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ২১ আগস্ট শনিবার রাতে রাজধানীর বাংলামটর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। সম্প্রতি রনি পুলিশের পোশাক খুলে নেওয়ার হুমকি দিয়ে আবারো আলোচনায় আসেন।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি রকিবুজ্জামান জানান, রনির বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া সে একাধিক মামলার আসামী। ওইসব মামলায় রনিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে তাকে গ্রেপ্তারের পর তাকে ফতুল্লা থানায় আনা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

পুলিশকে হুমকি ১৭ আগস্ট মাসদাইর এলাকার মজলুম মিলনায়তনে ছাত্রদলের দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতি হিসেবে বক্তব্য রাখতে গিয়ে জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি বলেন, ‘আজকে (মঙ্গলবার) ঢাকার কর্মসূচিতে পুলিশ বিনা উস্কানিতে হামলা করেছে। আমি জানি না পুলিশ কাদের লোক। তারা কি সাধারণ জনগণের নাকি একক শেখ হাসিনার ? আমি বলে দিতে চাই যদি একক শেখ হাসিনার হয়ে থাকেন আপনারা যে পোষাক পরিধান থাকেন সেটা জনগণের ট্যাক্সের টাকায় কিনা। যদি ছাত্রদল চিন্তা করে তারেক রহমান চিন্তা করে পুলিশের সেই পোষাক খুলে ফেলবে। সেটা আমাদের ওয়ান টু ব্যাপার মাত্র। ছাত্রদল পুলিশ প্রতিহত করবে।’

একই সাথে দলীয় নেতাকর্মীদের শায়েস্তা করার কথা উল্লেখ করতে গিয়ে আরও বলেন, আজকে অনেক নেতাকে দেখা যায় শুধুমাত্র পদ পদবীর সময় সামনে এসে দাঁড়ায়। নিজের সুন্দর চেহারা দেখিয়ে পদ পেয়ে যায়। শুধুমাত্র পদ নেয়ার জন্য তারা আসে। মাঝে মাঝে নিজের দলের নেতাকর্মীদের শায়েস্তা করার ইচ্ছা জাগে। কিন্তু পারি না এজন্য দল করি কিছু বাধ্যবাধকতা থাকে। আদর্শহীন রাজনীতি আমরা কখনও করি নাই। রাজনীতি করতে গিয়ে অনেকেই আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হয়েছেন বাড়ি গাড়ি করেছেন। কিন্তু ত্যাগী নেতারা কিছুই করতে পারে না।

শামীম ওসমানকেও হুমকি দেন

এর আগে ২০১৮ সালের ১০ সেপ্টেম্বর এমপি শামীম ওসমানকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বিরুপ মন্তব্য করেছেন ছাত্রদল নেতা মশিউর রহমান রনি। তিনি বলেছিলেন, ‘শামিম ওসমান সাহেব চ্যালেঞ্জ করেন বিএনপির জন্য নাকি তারা দুই একজন যথেষ্ট একটু হাসি পাচ্ছে ইদানিং ওনার কথা শোনলে আমার মাঝে মাঝে এমন মনে হয় যে তার মনের ভিতর সব সময় ভয় কাজ করে।’

তিনি আরও বলেন, ‘শামিম ওসমান নির্বাচন আসলে নিজে নিজে বিলাই এর মত মিউ মিউ করে বরকা পরে পালিয়ে যাওয়ার রাস্তা খোজে আগে নিজেকে সেফ করেন পরে বিএনপিকে নিয়ে ভাববেন। আমি জেলা ছাত্রদলের সভাপতি হিসেবে বলতে চাই প্রশাসনকে ব্যবহার না করে রাজপথে আসেন দেখি কার কত হেডাম আছে। বিগত ১২ বছর আন্দোলন করে আসছি আমার মনে হয় এমন ১২ বছর ক্ষমতার বাহিরে থাকলে আপনে আওয়ামীলীগ ছেরে বিএনপিতে যোগ দিতেন। আমরা শহিদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এর আদর্শে গড়া তারেক জিয়ার প্রতিষ্ঠিত সৈনিক। আমি আপনাকে চ্যালেঞ্জ করছি না তবে এটা বলছি তারেক জিয়া যখন আমাদের নির্দেশ দিবে তখন সকল জাতীয়তাবাদী শক্তি মাঠে নামবে পৃথিবীর কোনো শক্তি নাই তখন প্রতিহত করার। ইনশাআল্লাহ খুব তাড়াতাড়ি শামিম ওসমান এর জবাব রাজপথে দেয়া হবে।’

গ্রেপ্তার

পরবর্তীতে ওই বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর রাজধানীর আরামবাগ থেকে তাকে তুলে নেয় আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। দুই দিন পরে তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়। তখন থেকেই তার হাত পা ও চোখ বাঁধা ছিল। ওই দুইদিন নির্যাতন করে সোমবার সকালে পুলিশ তাকে গ্রেফতার দেখায়। ১৪১ দিন কারাভোগের পর ২০১৯ সালের ৫ ফেব্রুয়ারী জামিনে মুক্তি পায় রনি।

মশিউর রহমান রনির স্বীকারোক্তি মোতাবেক এরপর আরো একটি অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ। এসকল ঘটনায় তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন মামলা দায়ের করা হয়। সেই সাথে এসকল মামলায় তাকে দিনের পর দিন রিমান্ডে নেয়া হয়। সবশেষ ১৪১ দিন কারাবরণ করার পর কারাগার মুক্তি লাভ করেন।

গুন্ডামি
চলতি বছরের ৭ ফেব্রুয়ারি শহরের মাসদাইর এলাকার মজলুম মিলনায়তনে ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। যে ঘটনা নেপথ্যের নায়ক ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি। তার অনুসারীরা জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য রিয়াদ চৌধুরীর উপড় হামলা চালানোর আগে থেকেই লাঠি নিয়ে থাকেন মজলুম মিলনায়তনের সামনে। পরবর্তীতে রিয়াদ চৌধুরীর উপড় হামলা করতে না পারলেও তার বিরোধী ছাত্রদল নেতাদের উপর হামলা করেন। এদিন ছাত্রদলের ১০ জন নেতাকর্মী আহত হন।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, রনি অনেক সময় হুশ হারিয়ে ফেলে। কাকে কোথায় কি বলতে হবে সেসব কথা চিন্তা না করে হুটহাট মন্তব্য করে বসে। আগে পিছে না ভেবে প্রকাশ্যে থ্রেট করে বসে। কাউকে ছাড় দিচ্ছেনা। এতে করে নিজ দলেও শত্রুতা তৈরি করেছে। তার উপরে নতুন করে পুলিশও সেই তালিকায় রয়েছে। সূএ-নিউজ নারায়ণগঞ্জ২৪

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD