রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৪১ অপরাহ্ন

শিরোনাম ::
অনিবন্ধিত ৫৯ আইপিটিভি বন্ধ ১০ কোটিতে বিক্রি হল ১ টাকার কয়েন! তৃণমূলের নেতাকর্মীরা আওয়ামী লীগের প্রাণ, অতিথি পাখি নয় : তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী খালেদা জিয়ার সাজা আরও ৬ মাস স্থগিত এসএমপি’র টিলাগড় পয়েন্টে পুলিশ বক্সের উদ্বোধন সিলেট জেলা আ’লীগ ও জেলা পরিষদের সদস্যদের বঙ্গবন্ধুর ম্যুারালে শ্রদ্ধা নিবেদন গোয়াইনঘাটে ১ কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার আজ থেকে ৪ ঘণ্টা বন্ধ সিএনজি স্টেশন বাদাঘাটে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা সম্পন্ন সুনামগঞ্জে যাত্রীবাহী বাস নিযন্ত্রণ হারিয়ে আহত ৩০ সন্ধ্যায় আইপিএলে মুখোমুখি মুম্বাই-চেন্নাই ১৯৭০ সালে আজকের এই দিনে সিলেটে জন্মগ্রহণ করেছিলেন সালমান শাহ বিশ্বনাথে ১৫ বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেফতার প্রতিবন্ধী রাজনের করুণ জীবিকাযুদ্ধ যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে দেশে ফিরলেন সেনাবাহিনী প্রধান
cloudservicebd.com

শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলা: গ্রেফতার সেই আসামি ‘ছাত্রদলের’ নেতা

Screenshot 20210821 142537 Facebook - BD Sylhet News

বিডি সিলেট ডেস্কঃ ২০০২ সালের ৩০ আগস্ট সাতক্ষীরার কলারোয়ায় তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক এক আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শুক্রবার রাতে হাজারীবাগ থেকে আরিফুর রহমান রঞ্জু (৪২) নামের ওই আসামিকে গ্রেফতার করা হয়।

ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ডিবি) হাফিজ আক্তার জানান, আরিফুর কলারোয়া সরকারি কলেজে ছাত্রদলের নেতা ছিল। সে ১০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামি। শুক্রবার রাতে হাজারীবাগ থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

উল্লেখ্য, ২০০২ সালের ৩০ আগস্ট সাতক্ষীরায় একজন মুক্তিযোদ্ধার ধর্ষিতা স্ত্রীকে হাসপাতালে দেখে মাগুরায় ফিরে যাচ্ছিলেন তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কলারোয়ায় পৌঁছতেই সড়কে একটি বাস আড় করে দিয়ে তার পথরোধ করা হয়।

এ সময় জটলার সৃষ্টি হলে সেই সুযোগে শেখ হাসিনার  গাড়িবহরে হামলার ঘটনা ঘটে। হামলাকারীরা গুলি ছুড়ে, বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে তাণ্ডব সৃষ্টি করে। শেখ হাসিনার ব্যবহৃত গাড়ি ভাংচুর করা হয়। তার গাড়ির পতাকার স্ট্যান্ড ভেঙে ফেলা হয়। হামলাকারীরা ইটপাটকেল ও জুতা স্যান্ডেল ছুড়ে সহিংসতার সৃষ্টি করে।

এতে শেখ হাসিনা প্রাণে রক্ষা পেলেও তার সফরসঙ্গী জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ইঞ্জিনিয়ার শেখ মুজিবুর রহমান, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা ফাতেমা জামান সাথী, আব্দুল মতিন, জোবায়দুল হক রাসেল এবং শহীদুল হক জীবনসহ অনেকেই আহত  হন। একই সময় সাতক্ষীরার বেশ কয়েকজন সাংবাদিকও হামলার শিকার হন।

এ ঘটনায় কলারোয়া মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. মোসলেম উদ্দিন ২৭ জনকে আসামি করে কলারোয়া থানায় একটি মামলা করেন। কিন্তু থানায় রেকর্ড না হওয়ায় তিনি নালিশি আদালত সাতক্ষীরায় মামলাটি করেন। পরবর্তীতে এ মামলা খারিজ হয়ে গেলে ২০১৪ সালের ১৫ অক্টোবর হাইকোর্টের নির্দেশে ফের মামলাটি পুনরুজ্জীবিত হয়। এ সময় তদন্তকারী কর্মকর্তা ইন্সপেক্টর সফিকুর রহমান সাবেক সংসদ সদস্য হাবিবুল ইসলাম হাবিবসহ ৫০ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেন। সূত্র -যুগান্তর

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD