মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৩৪ অপরাহ্ন

শিরোনাম ::
চলতি বছরও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা হচ্ছে না : শিক্ষামন্ত্রী সিলেট জেলা আ.লীগ কর্তৃক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন পালিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫ তম জন্মদিন পালন করেছে বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগ হৃদরোগে প্রাণ গেল ২১ কোটির সুলতানের! পা ভেঙে লোকালয়ে বিলুপ্ত বাজপাখি বানের পানি ঠেলে সন্তানকে নিয়ে পোলিও টিকাকেন্দ্রে বাবা! মুফতি কাজী ইব্রাহিম আটক ৬ দফা দাবিতে কোথায় যাবেন রাইড শেয়ারিং গ্রুপ সিলেট’র মানববন্ধন দেশে পৌঁছেছে ফাইজারের আরও ২৫ লাখ টিকা তেলের সংকটে অচল ব্রিটেন, সেনাবাহিনী ডাকার কথা ভাবছে সরকার সেই চালককে বাইক উপহারের ঘোষণা গোলাম রাব্বানীর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন আজ অনলাইন গণমাধ্যমে সংবাদ লিখতে যে-বিষয়গুলো মনে রাখা দরকার সেই পাঠাও চালককে মোটরসাইকেল উপহার দেয়ার ঘোষণা বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার সাথে নিসচার মতবিনিময়
cloudservicebd.com

বৃটেনে ধীরে ধীরে পাথর হয়ে যাচ্ছে শিশুটি!

20210705 003315 - BD Sylhet News

ডেইলি মিররের খবরে বলা হয়েছে, বিরল এই রোগের নাম ফাইব্রোডিসপ্লেসিয়া অসিফিকানস প্রগ্রেসিভা। প্রতি ২০ লাখে একজনের এই রোগ হয়। এই অসুখে কঙ্কালের স্বাভাবিক কাঠামোর ওপর অতিরিক্ত হাড় গজায়।

এই রোগে পেশি ও লিগামেন্টের মতো সংযোগকারী টিস্যুর পরিবর্তে হাড় তৈরি হতে থাকে। ফলে ধীরে ধীরে অসাড় হয়ে যায় শরীর। নড়াচড়া করা আর সম্ভব হয় না। এই রোগে আক্রান্ত ব্যক্তির জীবন ২০ বছর বয়সের পর থেকে পুরোপুরি বিছানাতেই কাটে। নড়াচড়ার ক্ষমতা সম্পূর্ণভাবে লোপ পায়। ৪০ বছরের বেশি আয়ু হয় না।

বিরল রোগে আক্রান্ত শিশুটির জন্ম হয়েছিল ৩১ জানুয়ারি। সব কিছু ঠিকঠাকই ছিল। তবে তার অভিভাবকরা দেখতে পান, লেক্সি হাতের বুড়ো আঙুলগুলো নাড়াতে পারছে না। তাছাড়া তার পায়ের পাতাও আকারে অনেকটাই বড়। দেরি না করে মেয়েকে তারা দ্রুত ডাক্তারের কাছে নিয়ে যান।

গত এপ্রিলে করা এক্স-রে রিপোর্টে দেখা যায়, শিশুটির পায়ের পাতার উপরে আরও হাড় গজিয়েছে। সেই সঙ্গে বুড়ো আঙুলে দু’টি করে সন্ধিস্থল। সেই কারণেই ওই আঙুল নাড়াতে পারে না শিশুটি।

লেক্সির মা বলেন, এক্স-রের পর আমাদের বলা হয়েছিল, মেয়ের এমন রোগ হয়েছে যে সে হাঁটতে পারবে না। একথা শুনে আমরা অবাক হয়ে যাই। কেননা তার শরীরে তেমন কোনো লক্ষণই যে নেই। দিব্যি সে পা ছুড়ে খেলা করছে, একেবারেই সুস্থ। রাতে ঘুমোয়, সারাক্ষণ হাসিমুখ। তবে কান্না কম। ও যেন এরকমই থাকে, সেটাই আমরা চাই।

ডাক্তাররা জানাচ্ছেন, লেক্সির যা অবস্থা তাতে সামান্য চোট পেলেই তা মারাত্মক হয়ে উঠতে পারে। তাকে কোনো ইনজেককশন, ভ্যাকসিন দেওয়া যাবে না। দাঁতের পরিচর্যা করাও সম্ভব নয়। এমনকি বড় হলে সে কোনো সন্তান গর্ভে ধারণ করতে পারবে না।

তবে এমন পরিস্থিতিতে হাল ছাড়তে রাজি নন শিশুটির বাবা ও মা। ইতোমধ্যে তারা একাধিক বিশেষজ্ঞের সঙ্গে কথা বলেছেন। মেয়ের চিকিৎসা চালিয়ে যেতে তহবিল সংগ্রহ শুরু করেছেন। সেই টাকায় চিকিৎসার পাশাপাশি প্রয়োজনীয় গবেষণাও চালানোর পরিকল্পনা রয়েছে। সেই সঙ্গে অন্যদের সচেতন করতে প্রচার শুরু করেছেন ইন্টারনেটে।

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD