মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ১২:৪৫ অপরাহ্ন

শিরোনাম ::
আজ সাবেক মেয়র কামরানের ১ম মৃত্যুবার্ষিকীতে আ.লীগ ও পরিবারের পক্ষ থেকে নানা কর্মসূচি গ্রহণ সাবেক মেয়র কামরানের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ,এখনো তিনি মানুষের মনে জনতার কামরান সাবেক মেয়র কামরানের ১ম মৃত্যু বার্ষিকীতে সিলেট জেলা আ.লীগের কর্মসূচি সিলেট ৩ আসনকে নান্দনিক রূপে রূপান্তর করবো: হাবিব বিয়ানীবাজারে সিএনজি অটোরিকশার ধাক্কায় যুবক নিহত বিমান বাহিনী প্রধানকে এয়ার মার্শাল র‌্যাঙ্ক ব্যাজ পরানো হয়েছে সাবেক মেয়র কামরানের মৃত্যুবার্ষিকীতে পরিবারের বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ সিলেটে ১০টি ঘুমের ট্যাবলেট খাইয়ে আইনজীবী আনোয়ারকে হত্যা করেন স্ত্রী বিয়ানীবাজার থানার খসিরববন্দে বাড়ির সামনে থেকে অপহৃত মেয়েটি উদ্ধার সিলেট সীমান্তে ৪৮ বিজিবি’র ১৪৯ পরিবারকে খাদ্য সহায়াতা প্রদান সাবেক মেয়র কামরানের ১ম মৃত্যুবার্ষিকীতে সিলেট মহানগর আ.লীগের কর্মসূচী সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নাহিদ এমপি’র প্রচেষ্টায় চারখাইয়ে হাইওয়ে থানা হচ্ছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি সাধারন মানুষ সন্তুুষ্ঠ – শফিউল আলম নাদেল নিসচা’র কেন্দ্রীয় সহ সাংঠনিক সম্পাদক মিশুর সাথে বিয়ানীবাজার শাখার মতবিনিময় সভা সিলেট ৩ আসনের নৌকার মাঝি হাবিবকে ফুল দিয়ে বরণ করলেন এড.নাসির উদ্দিন খান
cloudservicebd.com

ছাতকে চাঞ্চল্যকর হত্যা রহস্য উদঘাটনে এসআই হাবিবের আরেকটি চমক

20210526 202912 - BD Sylhet News

ছাতক প্রতিনিধি::ছাতকে এক যুবককে হত্যা করে লাশ গুমের ঘটনার রহস্য উদঘাটন করতে সক্ষম হয়েছেন ছাতক থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই হাবিবুর রহমান (পিপিএম)। তিনি এক সপ্তাহের মধ্যে এ চাঞ্চল্যকর হত্যার রহস্য উদঘাটন সহ আসামী গ্রেফতার করতে সক্ষম হন। এসআই হাবিবুর রহমান হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন করে আবারো তার কর্ম দক্ষতার পরিচয় জানান দিলেন। তিনি বিগত সময়ে আরো বিভিন্ন ধরনের মামলার রহস্য উন্মোচন করতে সক্ষম হয়েছেন বলে জানা গেছে। তিনি বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর এক চৌকস ও সাহসী কর্মকর্তা হিসেবে অপরাধীদের কাছে অনেক আগে থেকেই পরিচিতি লাভ করেছেন। উল্লেখ্য, পৌর শহরের দক্ষিণ বাগবাড়ী এলাকায় বাবুল মিয়ার জমিতে গত ৪ মার্চ এক যুবকের বিকৃত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। যুবকের লাশ উদ্ধারের ঘটনায় ওই সময় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। এসআই মাসুদ রানা অজ্ঞাতনামা এ লাশের সুরতহাল রিপোর্ট করে লাশটি ময়না তদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ মর্গে প্রেরন করেন। ওই দিন রাতেই এসআই মাসুদ রানা বিশ্বাস বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামী করে ছাতক থানায় মামলা নং-০৬ (তাং৪-৩-২১ইং) দায়ের করেন। যুবক হত্যার খবর পেয়ে পুলিশ ইনভেষ্টিকেশন ব্যুারো (পিবিআই) একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। এদিকে মামলার রহস্য উদঘাটনের জন্য এসআই আসাদুজ্জামান খানের উপর দায়িত্ব পড়ে। কিন্তু হত্যা মামলা তদন্তের আশানুরূপ অগ্রগতি না হওয়ায় পরবর্তীতে সুনামগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বিপিএম’র নির্দেশে তদন্তভার দেওয়া হয় এসআই হাবিবুর রহমানকে। তিনি দায়িত্ব গ্রহন করে এক সপ্তাহের মধ্যেই হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন করে নিহত যুবকের পরিচয় সনাক্ত করেন এবং হত্যার সাথে জড়িত সন্দেহে দুইজনকে আটকও করেন। নিহত যুবকের নাম সাব্বির হোসেন(২২)। সে মৌলভীবাজার জেলার জুড়ি উপজেলার বাসিন্দা। শনিবার (২২ মে)বিকেলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে সাব্বির হত্যার সাথে জড়িত সন্দেহে লেবারপাড়া এলাকার বাড়ি থেকে তাজুল ইসলাম খসরু (৫৫) ও তার স্ত্রী সুফিয়া বেগম(৪৫) কে আটক করে। আটক তাজুল ইসলাম খসরু শহরের লেবারপাড়া (দক্ষিণ বাগবাড়ী) এলাকার মৃত রশিদ আলীর পুত্র। তার মূল বাড়ী দোয়ারাবাজার উপজেলার নরসিংপুর এলাকায়। গ্রেফতারকৃত আসামী দুইজনই হত্যা কান্ডের সাথে জড়িত বলে সুনামগঞ্জ আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছে বলে জানা গেছে।  মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ছাতক থানার সেকেন্ড অফিসার হাবিবুর রহমান (পিপিএম) জানান, আসামী তাজুল ইসলাম খসরু ও তার স্ত্রী সুফিয়া বেগম দু’জনই আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করে জবানবন্ধি দিয়েছে। আর এ হত্যা কান্ডের রহস্য উদঘাটন করতে সুনামগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বিপিএম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ছাতক সার্কেল বিল্লাল হোসেন ও ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ নাজিম উদ্দীনের দিক নির্দেশনায় সম্ভব হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD