রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০৮:২৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম ::
নিসচা’র কেন্দ্রীয় সহ সাংঠনিক সম্পাদক মিশুর সাথে বিয়ানীবাজার শাখার মতবিনিময় সভা সিলেট ৩ আসনের নৌকার মাঝি হাবিবকে ফুল দিয়ে বরণ করলেন এড.নাসির উদ্দিন খান বড়লেখায় নিসচার সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ছয়ফুল আলম পারুল এর কাব্যগ্রন্থ ‘ছন্দপতন’র মোড়ক উন্মোচন সাবেক মেয়র মরহুম বদর উদ্দিন কামরানের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিল ও শিরনী বিতরণ হযরত শাহজালালের মাজারে এবারও ওরস হচ্ছে না আইনি সহযোগিতা মাধ্যেমে মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করতে হবে – জগদীশ দাস স্কুল-কলেজে ছুটি আবার বাড়ল সিলেট ৩ আসন সহ উপনির্বাচনে নৌকার মাঝি হলেন যারা সিলেট – ৩ আসনে নৌকা পেলেন হাবিবুর রহমান হাবিব আ.লীগের সংসদীয় বোর্ডের সভা আজ, অপেক্ষায় সিলেটের ২৫ নেতা অগ্রণী তরুণ সংঘের পক্ষ থেকে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী তুহিন কে সংবর্ধনা প্রদান প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে সবাইকে এগিয়ে আাসা উচিৎ – সাংবাদিক মুহিত চৌধরী সিলেটে শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবসে মহানগর যুবলীগের মিলাদ ও দোয়া মাহফিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ
cloudservicebd.com

সাত মিনিটে হত্যার মিশন শেষ করে কিলার জানাল, ‘স্যার ফিনিশ’

20210521 041624 - BD Sylhet News

বিডি সিলেট ডেস্ক::  র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) দাবি করেছে, রাজধানীর পল্লবীতে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে সাহিনুদ্দিনকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় সাবেক সংসদ সদস্য ও তরিকত ফেডারেশনের সাবেক মহাসচিব এম এ আউয়ালের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে।

পুলিশের এই এলিট ফোর্সের দাবি মতে, ৩০ লাখ টাকার চুক্তিতে হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনা হয়েছে আউয়ালের কলাবাগানের কার্যালয়ে বসে। আর হত্যাকাণ্ড শেষে একজন খুনি আউয়ালকে ফোন করে বলেন,‘স্যার ফিনিশড’।

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি করেন সংস্থার আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

র‍্যাব জানায়, এক বিঘার বেশি জমি কেনার চেষ্টা করছিল সাবেক সংসদ সদস্য আউয়ালের ব্যবসায়িকপ্রতিষ্ঠান ‘হ্যাভিলি প্রপার্টি ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড’। নিহত সাহিনুদ্দিন ও তাঁর স্বজনরা এই জমির মালিক। কম টাকায় জমি কিনতে না পারায় এই হত্যার ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার রাতে চাঁদপুর থেকে ঘটনায় জড়িত সন্দেহে হাসানকে গ্রেপ্তার করা হয়। ভোরে আউয়ালকে ভৈরব থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ছাড়া পটুয়াখালীর বাউফল থেকে ১৯ নম্বর আসামি জহিরুল ইসলাম বাবুকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। গ্রেপ্তারকৃতরা এই হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।’

তবে বৃহস্পতিবার বিকেলে র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে এম এ আউয়াল দাবি করেন, ‘এই ঘটনায় আমি জড়িত না। তৃতীয় কোনো পক্ষ আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে। র‍্যাব ঘটনার তদন্ত করছে। আমি আশাবাদী, তদন্ত শেষে সব বের হয়ে আসবে।’

সংবাদ সম্মেলনে কমান্ডার মঈন বলেন, ‘হত্যার ঘটনার চার-পাঁচদিন আগে আউয়ালের কলাবাগানের অফিসে মোহাম্মদ তাহের ও সুমন হত্যার পরিকল্পনা করে। মাঠ পর্যায়ে হত্যার পরিকল্পনা বাস্তবায়নে সুমনকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। এরপর সুমন সক্রিয়ভাবে কিলিং মিশনে অংশগ্রহণ করে। এ সময় বেশ কয়েকজন কিলিং মিশনে জড়িত ছিল।’

র‍্যাবের কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, সুমন, বাবুসহ কয়েকজন একসঙ্গে মিটিং করে। এরপর ঘটনার দিন তারা মীমাংসার কথা বলে সাহিনুদ্দিনকে ঘটনাস্থলে ডেকে নেয়। এ সময় সাহিনুদ্দিন তাঁর সন্তান মাশরাফিকে নিয়ে সেখানে যান। তখন ওৎ পেতে থাকা সুমন, মানিক, হাসান, ইকবালসহ ১০-১২ জন সাহিনুদ্দিনকে কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে।’

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে লক্ষ্মীপুর-১ আসন থেকে তরিকত ফেডারেশনের হয়ে সংসদ সদস্য হন এম এ আউয়াল। সূত্রঃ সময়ের কন্ঠস্বর

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD