শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ০৪:১১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম ::
শুকনো কাশি দূর করার ঘরোয়া উপায় রোজার মহিমায় মুগ্ধ হয়ে ভারতীয় তরুণীর ইসলাম গ্রহণ সিলেট নগরী থেকে হেফাজত নেতা শাহীনূর পাশা গ্রেফতার কানাইঘাটে ধান কর্তন উৎসবের উদ্বোধন করলেন জেলা প্রশাসক লিটিল হোপ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ পরশ-নিখিলের নেতৃত্বে যুবলীগ মানবতার এক অনন্য উদাহরণ: নাদেল সিলেট নগরীতে প্রবাসীদের উদ্যোগে ঈদ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ রায়হান হত্যায় মৃত্যুদণ্ড হতে পারে এসআই আকবরের! ১শ ৬ কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত সিলেট মেরিন একাডেমির উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী যেখানে আছেন সেখানেই ঈদ উদযাপন করুন : প্রধানমন্ত্রী বড়লেখায় নিসচা উপজেলা শাখার অর্থ সম্পাদক মাছুমের ১৩তম রক্তদান সাবেক সাংসদ সেলিমের জানাযা ছেলে-মেয়েরা আমেরিকা থেকে আসার পর রিকশাচালককে নির্যাতনকারী সেই সুলতানকে জেলহাজতে প্রেরণ মোমেন ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে ঈদ উপহার ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কাবা শরিফের হাজরে আসওয়াদের রহস্যময় ছবি প্রকাশ
cloudservicebd.com

করোনার ভারতীয় ধরণটা কতটা বিপদজনক

FB IMG 1619304702459 - BD Sylhet News

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: করোনার সংক্রমণে ভারতে মৃত্যু বেড়ে গেছে। শ্মশানে দিন-রাত জ্বলছে চিতা। ২৪ এপ্রিল ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির একটি শ্মশানে।করোনার সংক্রমণে ভারতে মৃত্যু বেড়ে গেছে। শ্মশানে দিন-রাত জ্বলছে চিতা। ২৪ এপ্রিল ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির একটি শ্মশানে। ছবি: রয়টার্স করোনাভাইরাসের মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় নাকাল অবস্থা ভারতে। দিনে দিনে বাড়ছে রোগী, বাড়ছে মৃত্যু। শ্মশানে দিন-রাত জ্বলছে চিতা। হাসপাতালে শয্যার সংকট, অক্সিজেন সংকটসহ নানা সমস্যা প্রকট আকার ধারণ করছে। এর মধ্যেই উদ্বেগ আরও বাড়িয়ে দিয়েছে ভারতে পরিবর্তিত হয়ে তৈরি হওয়া করোনাভাইরাসের নতুন ধরন (স্ট্রেইন)।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, গত শুক্রবার থেকে গতকাল শনিবার পর্যন্ত ভারতে নতুন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৪৬ হাজার। গত কয়েক দিন ধরেই ভারতে দৈনিক রোগী শনাক্তের সংখ্যা তিন লাখের ওপরে। দিনে দিনে এই সংখ্যা বাড়ছে। গতকাল সকাল পর্যন্ত হিসাব অনুযায়ী ভারতে করোনা সংক্রমিত মোট রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১ কোটি ৬৬ লাখ ১০ হাজার ৪৮১ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ৩৮ লাখ ৬৭ হাজার ৯৯৭ জন। অর্থাৎ উপসর্গহীন, মৃদু, মাঝারি ও গুরুতর অসুস্থ- সব মিলিয়ে ভারতে গতকাল পর্যন্ত চিকিৎসাধীন করোনা রোগী ছিলেন ২৭ লাখ ৪২ হাজার ৪৮৪ জন।

করোনা রোগী বৃদ্ধির পাশাপাশি বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, গত শুক্রবার থেকে গতকাল শনিবার পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৬২৪ জন। এ নিয়ে ভারতে করোনায় মোট ১ লাখ ৮৯ হাজার ৫৪৪ জন মারা গেলেন।

ভারতে তৈরি হওয়া করোনাভাইরাসের নতুন ধরনটি এ ক্ষেত্রে কতটা দায়ী, তা অবশ্য নিরূপণ করতে পারেননি গবেষকেরা।

ভাইরাসের নতুন ধরনটি আসলে কী?

যেকোনো ভাইরাসই প্রতি মুহূর্তে পরিবর্তিত হয়, নিজেদের নতুন নতুন সংস্করণ বা ধরন (স্ট্রেইন) তৈরি করে। তবে ভাইরাসের বেশির ভাগ পরিবর্তনই তেমন উল্লেখযোগ্য কিছু নয়। কোনো কোনো পরিবর্তনে ভাইরাসটি দুর্বলও হয়ে পড়ে। কিন্তু কোনো কোনো পরিবর্তনের পর ভাইরাস আরও বিপজ্জনক হয়ে ওঠে, প্রচলিত টিকায় সুরক্ষা পাওয়া দুরূহ হয়ে পড়ে।

ভারতীয় ও আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোর তথ্যমতে, ভারতে তৈরি হওয়া করোনাভাইরাসের নতুন ধরনটির নাম গবেষকেরা দিয়েছেন ‘বি-ওয়ান-সিক্সসেভেনটিন’। গত অক্টোবরে এটি প্রথম শনাক্ত হয়। সে সময় সবে ভারত করোনার প্রথম ধাক্কা সামাল দিয়ে উঠছে। তবে গত মার্চ থেকে দেশটিতে সংক্রমণ আবার বাড়তে শুরু করে। গবেষকেরা বলছেন, দেশটিতে এটি করোনার দ্বিতীয় ঢেউ।

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD