শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৯:৫৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম ::
মুসলিমদের সাথে ইফতারে ভার্চুয়ালি যোগ দিলেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী ট্রুডো লাখো মানুষের ভালোবাসায় চির নিদ্রায় শায়িত হলেন দিলদার হোসেন সেলিম ঈদ উপলক্ষে কুলউড়ায় শফিউল আলম নাদেলের বস্ত্র বিতরণ লিটিল হুপ ফাউন্ডেশন এর পক্ষ থেকে খাবার সামগ্রী বিতরণ ছাতক উপজেলা ও পৌর আ’লীগের সম্মেলন প্রস্তুতির আহবায়ক কমিটি গঠন সিলেট পরিবহন শ্রমিকদের মধ্যে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করলেন নিসচার কেন্দ্রীয় নেতা মিশু সিলেট জেলা যুবলীগের উদ্যোগে ইফতার সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত সিলেট মেরিন একাডেমির উদ্বোধন ও প্রাসঙ্গিক কথা পাইলটের দক্ষতায় চাকা খুলে পড়া এয়ার অ্যাম্বুলেন্সের জরুরি অবতরণ মৌলভীবাজারে জোড়া লাগানো যমজ শিশুর জন্ম গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে শেখ হাসিনার দেশে ফিরে আসার সেই ঐতিহাসিক দিন আজ সিলেটে করোনায় আরো ২জনের মৃত্যু, সনাক্ত ৭৪ শুকনো কাশি দূর করার ঘরোয়া উপায় রোজার মহিমায় মুগ্ধ হয়ে ভারতীয় তরুণীর ইসলাম গ্রহণ
cloudservicebd.com

মাকে সুস্থ করতে গিয়ে সেই ছেলে এখন করোনা পজিটিভ

20210424 204534 - BD Sylhet News

বিডি সিলেট ডেস্ক:: করোনা সংক্রমিত মাকে বাঁচাতে পিঠে অক্সিজেন সিলিন্ডার বেঁধে মায়ের মুখে অক্সিজেন মাস্ক পরিয়ে মোটরসাইকেলে প্রায় ২০ কিলোমিটার পথ পাড়ি বরিশালের হাসপাতালে নিয়ে এসেছিলেন ঝালকাঠির তরুণ ব্যাংকার জিয়াউল হাসান। বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ছয় দিন চিকিৎসার পর সুস্থ বোধ করেন তাঁর মা। এরপর অনেকটা বিজয়ীর বেশে মোটরসাইকেলেই গতকাল শুক্রবার দুপুরে মাকে নিয়ে বাড়ি ফেরেন জিয়াউল। শনিবার সকালে আবার মাকে নিয়ে যান নলছিটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে।

সেখানে অ্যান্টিজেন টেস্ট করান জিয়াউল,তাঁর মা রেহেনা পারভীন (৫০) ও বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছোট ভাই রাকিব হাসান। মায়ের ও ছোট ভাইয়ের প্রতিবেদন আসে ‘নেগেটিভ’। কিন্তু জিয়াউল করোনা ‘পজিটিভ’।শনিবার দুপুরে প্রতিবেদন পাওয়ার পরই জিয়াউল বলেন, ‘ভাই আমি পজিটিভ। দোয়া করবেন, কোনো সমস্যা নেই। সুস্থই আছি। অক্সিজেন স্যাচুরেশনও ভালো।’

১৭ থেকে ২২ এপ্রিল ছয় দিন ধরে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন মায়ের সার্বক্ষণিক সেবাযত্ন করেছেন জিয়াউল। ঝুঁকি আছে জেনেও তাঁকে এই কাজে নিবৃত্ত করতে পারেননি চিকিৎসক, নার্স এমনকি স্বজনেরা। জিয়াউল বলেন, ‘আজ সকালে মাকে নিয়ে নলছিটি হাসপাতালে যাই আমরা দুই ভাই। মাকে অ্যান্টিজেন কিট দিয়ে ফলোআপ টেস্ট করানো হয়। এরপর আমরা দুই ভাইও টেস্ট করাই। দুজনের ফলাফল নেগেটিভ এলেও আমরা পজিটিভ এসেছে।’ এ সময় তিনি বলেন, ‘আসুক না, তাতে কী! আমার মা ও ছোট ভাই তো সুস্থ আছে।’সূত্র:প্রথম আলো

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


FB IMG 1620380947875 - BD Sylhet News

বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD