শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০৮:০০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম ::
বিমানের সৌদিগামী ফ্লাইট বাতিল, বিমানবন্দরে বিক্ষোভ করোনায় জীবন দিলেন পুলিশের আরও এক সদস্য, আইজিপি’র শোক মিনা পাল থেকে যেভাবে ‘মিষ্টি মেয়ে’ কবরী দেশের চলচ্চিত্রে কবরী এক উজ্জ্বল নক্ষত্র: প্রধানমন্ত্রী লকডাউনে জমজমাট অনলাইন জুয়া! আজ ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস সাবেক এমপি সারাহ বেগম কবরী’র মৃত্যুতে সাবেক শিক্ষামন্ত্রী’র শোক সিনেমার ‘মিষ্টি মেয়ে’ কবরী আর নেই দেশের সবচেয়ে বড় করোনা হাসপাতালের উদ্বোধন রোববার মসজিদের চাঁদা আদায় নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১, আটক ৪ তেল কিংবা চাল নয়, এবার ঘটলো টিকা চুরি শারীরিক সম্পর্কে জোর করায় হাত-পা বেঁধে স্বামীকে হত্যা শনিবার থেকে পাঁচ দেশ বিশেষ ফ্লাইট অনুমোদন বাঘের মুখ থেকে ছেলেকে কেড়ে আনলেন বাবা
cloudservicebd.com

হাটহাজারীতে নিহতদের মরদেহ নিজ এলাকায় পৌঁছে দিচ্ছে পুলিশ

Screenshot 2021 03 28 00 23 27 - BD Sylhet News

বিডি সিলেট ডেস্কঃ চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে পুলিশ-হেফাজতকর্মীদের সংঘর্ষে নিহত চারজনের মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে নিজ নিজ এলাকায় পৌঁছে দিচ্ছে পুলিশ। শনিবার (২৭ মার্চ) রাত ৯টার পর চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের মর্গ থেকে পুলিশি পাহারায় নিহতদের নিজ এলাকায় রওনা দেয় লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্স।

রাতের মধ্যেই স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় পুলিশি ব্যবস্থাপনায় তাদের মরদেহ দাফন করা হবে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগরের সহকারী পুলিশ কমিশনার শহীদুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ‘লাশ পরিবারের কাছে দেয়া হয়েছে। চারজনের মধ্যে একজনের বাড়ি চট্টগ্রামের রাউজানে। তিনজনের বাড়ি কুমিল্লা, নওগাঁ ও মাদারীপুরে। লাশ বাড়িতে চলে যাবে। হাটহাজারী মাদারাসায় নেয়া হবে না।’

শনিবার রাত ৯টার দিকে চারজনের মরদেহবাহী অ্যাম্বুলেন্সগুলো কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থায় নওগাঁ, কুমিল্লা, মাদারীপুর ও চট্টগ্রামের রাউজানের উদ্দেশে রওনা দেয়। নিজ এলাকায় মরদেহ দাফনের সিদ্ধান্ত শেষে মাগরিবের নামাজের পর হাটহাজারী মাদরাসায় নিহতদের গায়েবানা জানাজা হয়েছে।

এর আগে শনিবার বিকেল সাড়ে চারটায় হাটহাজারী থানায় হেফাজত নেতাদের সঙ্গে পুলিশের বৈঠকে এ সিদ্ধান্তে একমত হয় উভয়পক্ষ। বৈঠকে স্থানীয় সংসদ সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন ও চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার এস এম রশিদুল হক উপস্থিত ছিলেন। হেফাজতের পক্ষে দলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মীর ইদ্রিসসহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

শুক্রবার (২৬ মার্চ) জুমার নামাজের পর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফর নিয়ে বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে পুলিশ-হেফাজতের সংঘর্ষে চারজন নিহত হন। তারা হলেন- কুমিল্লা জেলার মনোহরগঞ্জের রবিউল হোসেন, নওগাঁর বদলগাছীর নসরুল্লাহ, মাদারীপুরের কাজী সিরাজুল ইসলাম ও চট্টগ্রামের রাউজানের ওয়াহিদুল ইসলাম।

তাদের মধ্যে তিনজন হেফাজতের কর্মী হলেও রাউজানের ওয়াহিদুল আলম হাটহাজারীতে একটি টেইলার্সে কাজ করতেন। তিনি সংঘর্ষের মাঝে পড়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান।

শুরু থেকেই প্রশাসন চাইছিল মরদেহের ময়নাতদন্ত করে তাদের পরিবারের হাতে হস্তান্তর করতে। কিন্তু হেফাজতের দাবি ছিল- চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে মরদেহ হাটহাজারী মাদরাসায় নিয়ে যাওয়ার। শুক্রবার ও শনিবার ছয় দফা বৈঠকের পর মরদেহ হাটহাজারী না নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত হয়

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


১০ index - BD Sylhet News

বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD