শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ১১:১১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম ::
নজিরবিহীন দৃষ্টান্ত, দেশে সংবাদ পাঠে প্রথম ট্রান্সজেন্ডার নারী বড়লেখায় স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন, সভাপতি জিল্লুর ও সম্পাদক ফরহাদ মিয়ানমার সেনাদের পরিচালিত ৫টি চ্যানেল বন্ধ করল ইউটিউব শুধুমাত্র লন্ডনে যেতেই বিয়ে করেন বালাগঞ্জের বুশরা! নবীগঞ্জে দিনদুপুরে টমটম চুরি করে নিয়ে যাওয়ার সময় চোর আটক ব্যাংক কর্মকর্তা মওদুদ হত্যায় আদালতে আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড ওসমানীনগরে ডিবি পুলিশের অভিযানে ভারতীয় নাসির বিড়িসহ আটক ১ আবারও নিউজিল্যান্ডের সেই মসজিদে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা নামাজে সিজদারত অবস্থায় মুসল্লির মৃত্যুু সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের কার্য্যকরী কমিটির প্রথম সভা অনুষ্ঠিত ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে বর্জ্যের ট্যাংকিতে পড়ে মা-ছেলেসহ নিহত ৩ অটোরিকশা চালাতে গিয়ে খালে পড়ে শিশুর মৃত্যু সাংবাদিক বুলবুলের পিতার মৃত্যুতে সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের শোক যে কারনে ফেরা হয়নি তার সিলেট নগরীর জিন্দাবাজার ব্যস্ত সড়কে এ কেমন পেশা!
cloudservicebd.com

হবিগঞ্জে পুলিশকে হেয় করে ভিডিও ভাইরালের ঘটনায় আটক ৫

20210219 151838 - BD Sylhet News

নুর উদ্দিন সুমন, হবিগঞ্জ থেকে : জনপ্রিয় যোগাযোগের ওয়েবসাইট হলো ফেসবুক। ফেসবুকের কল্যাণে মানুষ খুব সহজেই বিশ্বের কাছে নিজেকে প্রকাশ করতে পারে। কিন্তু বর্তমানে এই জনপ্রিয় মাধ্যমটির অপব্যবহার বেড়েছে। মানুষ আজকাল এই মাধ্যম ব্যবহার করে সমাজের এমন সব ঘটনা সামনে নিয়ে আসছে, যা সবার কাছে গ্রহণযোগ্য নয়। সামাজিক যোগাযোগের জনপ্রিয় মাধ্যমটি আজ মিথ্যার জালে জড়িয়ে অধপতনের হাতছানি দিচ্ছে। এটি এখন আর ডিজিটাল যুগের কোন চমকপ্রদ বিষয় নয়। যা আমাদের সামান্য বিনোদন দিয়ে থাকলেও তা থেকে মানুষ অতিমাত্রায় বিভ্রান্ত হওয়ার কারনে আস্তে আস্তে মানুষ এ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে। কিছু খারাপ ব্যবহারকারী ব্যক্তিগত নিরাপত্তা নষ্ট করে দিচ্ছে। তারা নকল ফেসবুক আইডি তৈরি করে অন্যের খারাপ খবর ছড়িয়ে দিচ্ছে। এতে ব্যক্তির সামাজিক মর্যাদা ক্ষুণ্ন হচ্ছে। অনেকেই ফেসবুক থেকে সরে এসেছেন, আর যারা এখনো ফেসবুক ব্যবহার করছেন, তারা প্রতিনিয়ত ভয় নিয়ে ব্যবহার করছেন। ফেইসবুকের অপরাধ সম্পর্কে নেই অধিকাংশ লোকের ধারণা বা অভিজ্ঞতা। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে সত্যতা যাচাই না করেই সবাই ঝাঁপিয়ে পড়েন মন্তব্য করতে, কেউ কেউ আবার এক কাঠি এগিয়ে নেমে পড়েন মাঠে৷ এক দল আছেন, যারা হয়তো ফেসবুক পোষ্টটা নিজের চোখে দেখেননি, অন্যের কাছে শুনেই হুঙ্কার ছাড়ছেন, মাথা ফাটাফাটি শুরু করে দিয়েছেন৷ তাদের এইসব ধ্বংসাত্মক কর্মকান্ডের ফায়দা লোটে দুর্বৃত্ত স্বার্থান্বেষী মহল৷ ফেসবুকের লেখা গণমাধ্যমের মতো সম্পাদিত নয়৷ অনেকেই সত্য-মিথ্যা না জেনে, তথ্য যাচাই বাছাই না করে তাৎক্ষণিক ভাবে এমন সব লেখা বা ছবি পোষ্ট করেন বা শেয়ার করেন, যা সমাজের স্থিতিশীলতার জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়ায়৷
এতে প্রতিনিয়তই ঘটছে মানহানিকর ঘটনা ও সাইবার অপরাধ । এই মাধ্যম ব্যবহার করছে প্রতারকরাও৷

সম্প্রতি চুনারুঘাটে ভূয়া পুলিশ ও সিএনজি চালক পুলিশ চেকপোস্টের অভিনয় করে ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ভিডিও আপলোড করে। ধারণকৃত ভিডিও প্রচার করে দেশ বিদেশে বাংলাদেশ পুলিশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করে সিএনজি চালকসহ তার সহযোগী কয়েকজন। সাধারণ মানুষ এই ঘটনার ভিডিও সত্যি মনে করে লাইক ও কমেন্ট ও শেয়ার করছেন। যাহা দেশ বিদেশে প্রায় ৮০ লক্ষাধিক লোক দেখেছেন। কমেন্টে অনেকে পুলিশ সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্যও করেন।হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্যাহ বিপিএম পিপিএম এর নির্দেশে বিষয়টি নিয়ে নিবিড় তদন্তে নামে পুলিশের একাধিক গোয়েন্দা টিম। অবশেষে তাদেরকে সনাক্ত করে আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন, সিএনজি চালক সাটিয়াজুড়ী ইউনিয়নের পনারগাও গ্রামের ইব্রাহীম মিয়ার ছেলে শাহিন মিয়া (২৫), তার সহযোগী শহীদুল ইসলামের ছেলে হারুন মিয়া(২০), মৃত আব্দুল মন্নানের পুত্র মুক্তার জামান (২০) মো: শহীদুল ইসলামের ছেলে হারুন মিয়া(২০) মনিরুল ইসলাম (২০) উবাহাটা ইউনিয়নের নোয়াগাও গ্রামের তুরাব আলীর ছেলে কামরুল হাসান (২৪)।

উল্লেখ্য পুলিশকে হেয় করে গত ৩১ জানুয়ারি সাজানো ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপলোড করা হয়। পরে দ্বিতীয় বার কামরুল হাসান নামীয় আইডি থেকে গত পহেলা ফেব্রুয়ারি ভিডিওটি ফেসবুকে পূনরায় আপলোড করা হয়।সেখানে দেখা যায়,

অটোরিকশাসহ ড্রাইভারকে আটক করা হচ্ছে। অটোরিকশা চালক পুলিশকে হেয় ও তুচ্ছতাচ্ছিল্য করে কথা বলছেন। ভিডিওটি ধারণ শেষেফেইসবুকে আপলোড দেয় তারা।
কতিত পুলিশ অটোরিকশা ড্রাইভারকে আটক করে তল্লাশি করে। তল্লাশির সময় সিএনজি ড্রাইভার পুলিশকে নিয়ে নানা কটূক্তি করে কথা বলে যা পুলিশ বাহিনীকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলে।
সাধারণ মানুষ এইঘটনার ভিডিওটি সত্যি মনে করে অনেকেই অনেক নেতিবাচকলাইক ও কমেন্ট করেন। বিষয়টি পুলিশ বিভাগের ঊর্ধ্বতনের নজরে পড়ে। এর পর থেকে হবিগঞ্জের পুলিশ সুপারের তত্বাবধানে বিষয়টি নিয়ে নিবিড় তদন্তে নামে পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের একটি দল। অবশেষে গতকাল রাতে সিএনজি চালক শাহিনকে সনাক্ত করে আটক করা হয়। আটক শাহীনের দেয়া তথ্যমতে জেলা গোয়েন্দার ওসি মো: আল আমিনের নেতৃত্বে একদল পু্লিশ ও চুনারুঘাট থানার ওসি মো: আলী আশরাফ এর নেতৃত্বে একটি বিশেষ টিম বিভিন্ন স্থান থেকে বাকীদেরকে গ্রেফতার করেন।

চুনারুঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আলী আশরাফ বলেন, তারা এই ভিডিও ফেসবুকে আপলোডের কারণে স্থানীয় পুলিশ-প্রশাসনসহ দেশের পুলিশ বিভাগের সম্মান ক্ষুণ্ন হয়েছে। তাদের বিরোদ্ধে চুনারুঘাট থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে। আটককৃতদেরকে দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

আটককৃতরা সাংবাদিকদের বলেন, মজা করে চার বন্ধু মিলে ভিডিও করে সেফকুকে আপলোড করেছেন তারা। এ বিষটি যে অপরাধ সেটা তাদের জানা ছিল না।

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০১৭ - ২০২০
Design & Developed BY Cloud Service BD