রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০৪:৩১ অপরাহ্ন

শিরোনাম ::
নিসচা’র কেন্দ্রীয় সহ সাংঠনিক সম্পাদক মিশুর সাথে বিয়ানীবাজার শাখার মতবিনিময় সভা সিলেট ৩ আসনের নৌকার মাঝি হাবিবকে ফুল দিয়ে বরণ করলেন এড.নাসির উদ্দিন খান বড়লেখায় নিসচার সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ছয়ফুল আলম পারুল এর কাব্যগ্রন্থ ‘ছন্দপতন’র মোড়ক উন্মোচন সাবেক মেয়র মরহুম বদর উদ্দিন কামরানের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিল ও শিরনী বিতরণ হযরত শাহজালালের মাজারে এবারও ওরস হচ্ছে না আইনি সহযোগিতা মাধ্যেমে মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করতে হবে – জগদীশ দাস স্কুল-কলেজে ছুটি আবার বাড়ল সিলেট ৩ আসন সহ উপনির্বাচনে নৌকার মাঝি হলেন যারা সিলেট – ৩ আসনে নৌকা পেলেন হাবিবুর রহমান হাবিব আ.লীগের সংসদীয় বোর্ডের সভা আজ, অপেক্ষায় সিলেটের ২৫ নেতা অগ্রণী তরুণ সংঘের পক্ষ থেকে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী তুহিন কে সংবর্ধনা প্রদান প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে সবাইকে এগিয়ে আাসা উচিৎ – সাংবাদিক মুহিত চৌধরী সিলেটে শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবসে মহানগর যুবলীগের মিলাদ ও দোয়া মাহফিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ
cloudservicebd.com

মুসল্লিদের জুতা সাজিয়ে রেখেই প্রশান্তি পান এক অমুসলিম!

20210209 131941 - BD Sylhet News

বিডি সিলেট ডেস্ক:: আল-মাওয়াদ্দাহ মসজিদ, সিঙ্গাপুর। প্রতি শুক্রবার এ মসজিদে ব্যতিক্রমধর্মী কাজে নিয়োজিত এক অমু’সলিম যুবকের দেখা মেলে। প্রচণ্ড গরমেও মসজিদের বাইরে বসে মুসল্লিদের জুতাগুলো সোজা করে সারি সারিভাবে সাজিয়ে রেখে প্রশান্তি লাভ করে।

অ্যাংকল স্টিভেন। সে অমু’সলিম। শুক্রবার শুধু মুসল্লিদের জুতা সোজা করে সাজিয়ে রাখায় আ’নন্দ পায় সে। এ আ’নন্দ অনুভূতি থেকেই প্রতি শুক্রবার সিঙ্গাপুরের আল-মাওয়াদ্দাহ মসজিদের সামনে চলে আসে।ইমরান মুস্তাফা নামের এক স্কুল শিক্ষক মুসল্লি তার ফেসবুকওয়ালে তুলে ধরে এ ঘ’টনা।

যা খবর আকারে প্রকাশ করেছে ইলমফিড.কম।ফেসবুকে ইরফান মুস্তাফা জানান, ‘মুসল্লিরা মসজিদে এসে যখন প্রচণ্ড সূর্যের তাপে বাইরে অবস্থান করতে পারে না। মসজিদের ভে’তরে এসিতে নামাজ আদায় করে তখন অ্যাংকল স্টিভেন প্রচণ্ড গরমের মধ্যেই মুসল্লিদের জুতা সারি সারি করে সাজিয়ে রাখতে ব্যস্ত সময় পার করে।

অ্যাংকল স্টিভেন জানায়, মসজিদের বাইরে জুতাগুলো সারি সারি সাজিয়ে রাখলে সুন্দর দেখা যায়। আমি মসজিদের কাছাকাছিই থাকি এবং প্রতি শুক্রবার আসার চেষ্টা করি।এ কাজটি আমি কেন করি, তা আমার জানা নেই তবে সারি সারি সাজানো জুতাগুলো দেখতে আমার ভালো লাগে।

আর মসজিদে এসে এ কাজ করে আমি প্রশান্তি লাভ করি।অ্যাকংল স্টিভেন অনুপ্রেরণাদানকারী সমাজ সচেতন মানুষ। সাজানো-গোছানো ও সুন্দর পরিপাটি যে কোনো জিনিস দেখতে কার না ভালো লাগে? ভালো কাজ করতে চাইলে যে কোনো সময় যে কোনো জায়গা থেকেই করা যায়।

প্রয়োজন শুধু একটি ইতিবাচক মা’নসিকতার।অমু’সলিম হয়েও অ্যাংকল স্টিভেন মু’সলিম’দের অগোছালো জুতাগুলো সারি সারি সাজিয়ে রেখে সেই ইতিবাচক মা’নসিকতা পরিচয় ও অনুপ্রেরণা তুলে ধরেছেন। শুভ কামনা অ্যাংকল স্টিভেনের প্রতি…

শেয়ার করুন...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


বিডি সিলেট নিউজ মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD